নিউজঅফবিটরাজ্য

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প নিয়ে যথেষ্ট উৎসাহিত মহিলারা। জিরো ব্যালেন্সের অ্যাকাউন্ট খুলতে ভীড়।

নিজস্ব প্রতিবেদন: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একুশের ভোটে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় প্রচারে গিয়ে নানান জনমোহিনী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। একুশের ভোটে জিতে সরকার গঠন করার পরেই তিনি তার প্রতিশ্রুতি রাখতে শুরু করে দিয়েছেন। ইতিমধ্যেই তাঁর কথামতো দুয়ারে রেশন ব্যবস্থা শুরু করার জন্য রাজ্যবাসীর রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ডের লিঙ্ক করা প্রায় শেষের পথে।

এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী তার প্রতি প্রতি মত শুরু করে দিয়েছেন স্টুডেন্টস ক্রেডিট কার্ড লোন। এই লোন পরিষেবা ইতিমধ্যেই সারা বাংলা জুড়ে যথেষ্ট জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী বাংলার মহিলাদের মাসিক হাতখরচ দেওয়ার জন্য খুব শীঘ্রই চালু করতে চলেছেন লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প।

এর জন্য আগামী ১৬ ই আগস্ট থেকে দুয়ারে সরকারে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন করতে পারবেন মহিলারা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন, পূজার আগেই হাতে এই প্রকল্পের টাকা পেয়ে যাবেন বাংলার মা বোনেরা। এই প্রকল্পে তপশিলী জাতি এবং উপজাতি ভুক্ত মহিলারা পাবেন মাসে ১০০০ টাকা করে হাতখরচ আর সাধারণ ক্যাটাগরি ভুক্ত মহিলারা পাবেন ৫০০ টাকা করে হাতখরচ।

আরও পড়ুন – জেলায় জেলায় ভারী বৃষ্টির সতর্কতা দিলো আবহাওয়া দপ্তর

মুখ্যমন্ত্রী আশা নিয়ে রেখেছেন যে তার এই জনকল্যাণমূলক প্রকল্পের ফলে মহিলারা স্বনির্ভর হওয়ার দিকে এগিয়ে যেতে পারবেন। তিনি জানিয়েছেন যে আগামী ১৬ ই আগস্ট থেকে দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পে এই প্রকল্পের ফর্ম তুলে তা পূরণ করে জমা দিতে পারবেন মহিলারা। রাজ্যের প্রায় ১ কোটি ৩০ লক্ষ মহিলাকে এই প্রকল্পের আওতায় মাসিক হাতখরচ দেওয়া হবে।

এদিকে দক্ষিণ দমদম পৌরসভার অন্তর্গত ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে একটি বেসরকারি ব্যাঙ্কে এই প্রকল্পে মহিলাদের সুবিধা দেওয়ার জন্য জিরো ব্যালেন্সের অ্যাকাউন্ট করে দেওয়া হচ্ছে। এই খবর প্রচারিত হ‌ওয়া মাত্র‌ই হাজার হাজার সংখ্যায় মহিলারা জিরো ব্যালেন্সের অ্যাকাউন্ট করার জন্য লাইন দিয়েছেন। ওই ব্যাঙ্কের বাইরে রীতিমতো মহিলাদের লাইন লেগে যায়। উপস্থিত মহিলারা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের ফলে খুবই আনন্দিত হয়েছেন। তাঁরা সকলেই মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি অশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন।

Related Articles

Back to top button