নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“পিএসি চেয়ারম্যান পদে কেন গৃহীত হল মুকুলের মনোনয়ন?”- বিধানসভার অধ্যক্ষকে প্রশ্ন করলো বিজেপি।

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজ্য রাজনীতি আবার উত্তাল হয়েছে বিধানসভার পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান নির্বাচন করাকে কেন্দ্র করে। মুকুল রায় এখনো বিজেপির বিধায়ক পদ থেকে পদত্যাগ করেননি। তিনি এই পিএসির চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। মুকুল রায়ের নাম প্রস্তাব করেছেন কালিম্পং এর মোর্চা বিধায়ক বিনয় তামাং।

বিজেপি এদিকে প্রবল বিরোধিতা করে চলেছে মুকুল রায়ের এই মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে। এই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, “মুকুল রায় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তিনি বিজেপি পার্টির মেম্বার রয়েছেন এখনো। ‌ তাছাড়া কালিম্পং থেকে মুকুল রায় কে বিনয় তামাংদের দল সমর্থন জুগিয়েছে। ‌

আরও পড়ুন-“মুকুল রায় বিজেপি পার্টির‌ই সদস্য”- পিএসি প্রসঙ্গে বললেন মুখ্যমন্ত্রী।

আমরাও তাঁকে সমর্থন দেবো। এখনো খাতায়-কলমে তিনি কৃষ্ণনগর উত্তরের বিজেপি বিধায়ক পদে রয়েছেন। বিধায়ক পদ থেকে তিনি এখনো ইস্তফা দেন নি। ‌ স্পিকার সিদ্ধান্ত নেবেন।”

বিজেপি মনোনয়নপত্র স্ক্রুটিনি কটার সময় মৌখিকভাবে আপত্তি জাহির করেছিল। কিন্তু এরপরেও মুকুল রায়ের মনোনয়নপত্র গ্রহণ করার দরুন লিখিতভাবে বিধানসভার অধ্যক্ষের কাছে মুকুল রায়ের মনোনয়নপত্র বাতিল করার আবেদন জানিয়েছে বিজেপি। কি শর্তে কৃষ্ণনগর উত্তরের বিজেপি বিধায়ক মুকুল রায়ের মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেছেন স্পিকার এই মর্মে তাকে প্রশ্ন করেছেন বিজেপি নেতারা।বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় কে এই মর্মে চিঠি লিখেছে বিজেপির পরিষদীয় দল।

আরও পড়ুন-এবার রাহুল গান্ধীকে কটাক্ষ করলেন শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে। প্রকাশ্যে এলো শিবসেনা-বিজেপি দ্বিমত।

‌ প্রথম থেকেই মুকুল রায়ের এই পদে আসীন হওয়ার উদ্যোগকে সম্পূর্ণ বেআইনি বলে দাবি করে আসছে বিজেপি।তবে তৃণমূল জানিয়েছে মুকুল রায় বর্তমানে বিজেপির বিধায়ক হলেও তৃণমূল তার নাম প্রস্তাব করে নি। কালিম্পং এর মোর্চা বিধায়ক‌ই মুকুল রায়ের নাম প্রস্তাব করেছেন। তাই এর পরেই মুকুল রায় তাঁর মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন।

এগরার তৃণমূল বিধায়ক মুকুল রায়ের এই মনোনয়নকে সমর্থন জানিয়েছেন।কিন্তু বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেছেন , তিনি আইনি পথ অবলম্বন করবেন। তিনি বলেছেন যে অবিলম্বে তিনি মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন লাগু করিয়েই ছাড়বেন।

Related Articles

Back to top button