নিউজপলিটিক্স

আবার অশান্ত ভাটপাড়া। ভোট মিটতে পার্টি অফিসে ঢুকে তৃণমূল নেতাকে গুলি করল অজ্ঞাত পরিচয় ৩ দুষ্কৃতী

নিজস্ব প্রতিবেদন: ভোট মিটতেই বিভিন্ন জায়গা থেকে ব্যাপক অশান্তির খবর পাওয়া যাচ্ছে। প্রথম দফার ভোট যথেষ্ট শান্তিপূর্ণভাবে মিটেছিলো। কিন্তু দ্বিতীয় দফার ভোট থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় জায়গায় ব্যাপক অশান্তির খবর মিলেছে। বিশেষ করে কোচবিহারের শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে ৪ তৃণমূল সমর্থকের মৃত্যুতে সারা বাংলা জুড়ে ব্যাপক আলোড়ন ছড়িয়ে পড়েছে। এছাড়াও শেষ দফার ভোটেও ব্যাপক হিংসা হানাহানির ঘটনা ঘটেছে ।

বীরভূমের বেশ কিছু জায়গায় তাজা বোমা উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়াও আলিনগরে কয়েকটি তীর উদ্ধার করেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। ধরমপুরে বিজেপি প্রার্থী অনির্বাণ গাঙ্গুলী কে বাঁশ নিয়ে তাড়া করার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে। এছাড়াও বিভিন্ন জায়গা থেকে একের পর এক ঝামেলা অশান্তির ঘটনার খবর পাওয়া গিয়েছে।

আরও পড়ুন-আংশিক লকডাউনে কোন কোন ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা? জেনে নিন বিস্তারিত!!

এদিকে ভাটপাড়ায় ভোটের দিন কোন ঝামেলা অশান্তির ঘটনা না ঘটলেও গত ২৯ শে এপ্রিল শেষ দফার ভোট মিটতেই আবার উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ভাটপাড়া। জানা গিয়েছে, তৃণমূল পার্টি অফিসে ঢুকে তৃণমূল নেতাকে গুলি করেছে অজ্ঞাত পরিচয় ৩ দুষ্কৃতী। তারপরেই বাইকে করে চম্পট দেয় ওই দূষ্কৃতীরা। বিজেপির বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ করেছে তৃণমূল। ওই আহত তৃণমূল নেতার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে কলকাতায় নিয়ে আসা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

এই প্রসঙ্গে তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিম বলেছেন, “শার্প শুটার এসে গুলি করেছে। তাঁর বাঁ দিকের কাঁধে এবং ডানদিকের চোয়ালে গুলি লেগেছে। যখন‌ই ইলেকশন কমিশনের পুলিশ যায় তখনই ভাটপাড়া বা ব্যারাকপুর অঞ্চলে গন্ডগোল হয়। কেন ইলেকশন কমিশনের অপদার্থতার জন্য সাধারণ লোকের প্রাণ যাবে ? ইলেকশন কমিশন অপদার্থতার পরিচয় দিয়েছে।”এই প্রসঙ্গে ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং তৃণমূলের গোষ্ঠীদন্দ্বকেই তুলে ধরেছেন।

Related Articles

Back to top button