নিউজপলিটিক্সরাজ্য

খোয়াই থানায় ধরনা’র ঘটনায় অভিষেক সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে এফ‌আইআর দায়ের করলো ত্রিপুরা পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদন: ত্রিপুরার বুকে আগামী ২০২৩ এর বিধানসভা ভোটে নিজেদের সর্বময় কর্তৃত্ব স্থাপনে তৎপর হয়ে রয়েছে তৃণমূল। এই লক্ষ্যে ত্রিপুরার মাটিতে পৌঁছে গিয়েছিলেন তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ, ব্রাত্য বসু, দোলা সেন এবং যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা, জয়া দত্ত রা। কিন্তু দেবাংশুদের উপরে আক্রমণ করেছে ত্রিপুরার বিজেপি কর্মীরা।এছাড়া দেবাংশু সহ তৃণমূলের যুব নেতারা বিক্ষোভ দেখালে মহামারি আইনের আওতায় তাঁদের গ্রেফতার করেছিলো ত্রিপুরা পুলিশ।

দোলা সেন, সুদীপ রাহা এদের শরীরে আঘাত লেগেছিলো বলে অভিযোগ উঠেছে। এদিকে ত্রিপুরার খোয়াই থানায় পৌঁছে গিয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি রীতিমতো পুলিশ কর্তাদের সাথে বাক বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েছিলেন। এর পরেই ৫০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন পান দেবাংশুরা।

আরও পড়ুন-মুকুল মামলায় স্পিকারকে আগামী ১২ ই আগস্টের মধ্যেই হলফনামা দেওয়ার নির্দেশ দিলো হাইকোর্ট

এরপরেই তাঁদের নিয়ে কলকাতায় প্রত্যাবর্তন করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতার এস‌এসকেএম হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তৃণমূলের নেতা সুদীপ রাহা, জয়া দত্ত প্রমুখেরা।এদিকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে ত্রিপুরা পুলিশ। জানা গিয়েছে, তৃণমূল নেত্রী দোলা সেন সহ শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু, সুবল ভৌমিক এবং তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে ত্রিপুরা পুলিশ।

আরও পড়ুন-“গ্রেট ক্যালকাটা কিলিং এর ঘটনার দিনে খেলা হবে দিবস। তারিখ পরিবর্তন করা হোক”- মমতাকে অনুরোধ করলেন ধনখড়

মহামারী আইন লঙ্ঘন করার অপরাধে দেবাংশু, জয়া দত্ত, এবং সুদীপ রাহা সহ ১৪ জনকে গ্রেফতার করেছিলো খোয়াই থানার পুলিশ। সেখানে হাজির হয়ে পুলিশ‌ কর্তাদের রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপরেই অভিষেক সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে এফ‌আইআর দায়ের করলো ত্রিপুরা পুলিশ। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূল নেত্রী দোলা সেন বলেছেন,”তৃণমূলকে অত্যন্ত ভয় পেয়ে গিয়েছে ত্রিপুরায় বিজেপি সরকার।

আমাদের যদি ডেকে থাকে, তাহলে ডাকুক। আমাদের বিচার ব্যবস্থার উপর আস্থা রয়েছে।”

Related Articles

Back to top button