নিউজপলিটিক্সরাজ্য

আবার খবরের শিরোনামে ত্রিপুরা। এবার তৃণমূলে যোগ দেওয়া বাম কর্মীদের মারধর বিজেপির

নিজস্ব প্রতিবেদন: ত্রিপুরার মাটিতে যথেষ্ট উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। গত শনিবার আক্রান্ত হয়েছিলেন দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা, জয়া দত্ত সহ তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা। ত্রিপুরার মাটিতে তাঁরা বিজেপি কর্মী সমর্থকদের হাতে আক্রান্ত হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছিলেন। এমনিতেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেই ঘোষণা করেছেন যে আগামী ২০২৩ ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচনে ত্রিপুরার মাটিতে লড়াই করতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

সেই লক্ষ্যে তৃণমূলের নেতারা ত্রিপুরার মাটিতে গিয়েছিলেন। সেখানেই দেবাংশু দের উপরে হামলা হয়। তারপরে এই হামলার পরিপ্রেক্ষিতে দেবাংশু ভট্টাচার্য রা বিক্ষোভ দেখালে দেবাংশু, সুদীপ, জয়া সহ মোট ১৪ জনকে গ্রেফতার করে খোয়াই থানা পুলিশ। তারপরে তাদের চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে তোলা হয় সেখানে তারা ৫০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন পান ।

আরও পড়ুন-“১৭ মাস পর বিজেপি সরকারকে উৎখাত করবো ত্রিপুরা থেকে”- হুঙ্কার দিলেন অভিষেক।

আহত তৃণমূল নেতা নেত্রীদের নিয়ে কলকাতায় প্রত্যাবর্তন করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতায় এসে এস‌এসকেএমে ভর্তি করা হয় দেবাংশু, জয়া এবং সুদীপ দের । দেবাংশুকে প্রাথমিক চিকিৎসার পরেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।এদিকে ত্রিপুরার মাটিতে বাম ছাত্রনেতা সম্রাট মোদক সহ বেশ কয়েকজন সিপিএম কর্মী সমর্থকরা তৃণমূলে যোগদান করখর ইচ্ছাপ্রকাশ করেছিলেন।

এবার সেই ছাত্রনেতা সহ অন্যান্য বামকর্মীদের মারধর করার অভিযোগ উঠেছে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এই বিষয়ে তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ টুইট করে লিখেছেন,”আবার খোয়াইতে হামলা হল। তৃণমূলে যোগদান করতে চেয়ে গতকাল রবিবার দেখা করেছিলেন বাম ছাত্রসংগঠন সম্রাট মোদক। মোট ৩০ জন বাম নেতাকর্মীর যোগদান করার কথা ছিল তৃণমূলে।

আরও পড়ুন-“আপনাদের কাঁধে পদ্মফুল নয়, অশোক স্তম্ভ রয়েছে”- ত্রিপুরার পুলিশকে গর্জে উঠে বললেন অভিষেক।

কিন্তু আজ সকালে ছাত্র নেতা সম্রাট মোদক সহ সিপিএম কর্মীদের ঘিরে ধরে ব্যাপক মারধর করেছে বিজেপি। ত্রিপুরার মাটিতে রীতিমত গুন্ডারাজ চালাচ্ছে তারা। ‌ ভয় পেয়ে নিজেদের অস্তিত্ব বাঁচাতে লাগাতার আক্রমণ করে চলেছে বিজেপি। কিন্তু এইভাবে তৃণমূলকে কখনোই আটকানো যাবেনা।”

Related Articles

Back to top button