নিউজপলিটিক্সরাজ্য

প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা আইপ্যাকের সাথে ২০২৬ সাল পর্যন্ত চুক্তি হল তৃণমূলের।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিধানসভা ভোটে প্রশান্ত কিশোরের নিখুঁত পরামর্শে মাস্টার স্ট্রোক খেলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে যথেষ্ট বিধ্বস্ত হয়েছিল তৃণমূল। তাই একুশের রণকৌশল সাজাতে প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা আইপ্যাক এর সাথে চুক্তি সম্পন্ন করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। আইপ্যাকের পরামর্শ মতো পা ফেলে এবার একুশের ভোটে বাজিমাত করেছে তৃণমূল।

তাই আগামী ২০২৪ এর লোকসভা ভোটেও তৃণমূলের নজরে রয়েছে আইপ্যাকের মূল্যবান রণকৌশল। তাই আবার আইপ্যাকের সাথে চুক্তি করতে বদ্ধপরিকর তৃণমূল কংগ্রেস। এই সংস্থার রণকৌশলের ওপর ভিত্তি করেই দিল্লি দখল করার লড়াই চালাবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সহ তৃণমূলের রথী-মহারথীরা। একুশের ভোটের রাজ্যে ক্ষমতা দখলের জন্য প্রাণাতিপাত করেছিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা মন্ত্রীরা।

আরও পড়ুন-২০২৪ এর লোকসভা ভোটে লড়তে আইপ্যাকের কৌশলেই ভরসা রাখছেন তৃণমূলের রথী মহারথীরা।

বারবার রাজ্যের মাটি কামড়ে পড়ে ছিলেন নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে অমিত শাহ , জে পি নাড্ডা রা। কিন্তু কার্যত তৃণমূলের ঝড়ে উড়ে গিয়েছে বিজেপি। আর এই ঝড়ের মুখ্য হোতা আইপ্যাক। যাদের রণকৌশল অক্ষরে অক্ষরে পালন করেছে তৃণমূল।

তৃণমূলের ‘দুয়ারে সরকার’, ‘পাড়ায় পাড়ায় সমাধান’ , ‘বাংলার গর্ব মমতা’- প্রভৃতি নানান উল্লেখযোগ্য রণকৌশল সাজিয়েছিল এই আইপ্যাক। এছাড়াও তৃণমূলের সবথেকে জনপ্রিয় ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচী‌ও আইপ্যাকের মস্তিষ্কপ্রসূত। এর ফলে সারা রাজ্যে ২১৩ টি আসনে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়েছে তৃণমূল। এবার এই সংস্থার উপর ভরসা করে ২০২৪ এ দিল্লি দখলের উদ্দেশ্যে নিজেদের রণকৌশল সাজাচ্ছেন অভিষেক, মুকুলরা।

আরও পড়ুন-ভিন রাজ্যে বজ্রাঘাতে মৃত বাঙালি পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

জানা গিয়েছে আইপ্যাকের সাথে ২০২৬ সাল পর্যন্ত চুক্তি পাকা করে ফেলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তবে প্রশান্ত কিশোর বলেছিলেন যে, তিনি আর ভোট কুশলীর কাজ করবেন না। তাই ২৪ এর ভোটে তাঁর কি ভূমিকা থাকে সেই দিকে তাকিয়ে সকলেই।

Related Articles

Back to top button