নিউজ

করোনায় মৃত্যু খড়দার তৃণমূল প্রার্থীর। নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে অনিচ্ছাকৃত খুনের অভিযোগ করলেন তাঁর স্ত্রী।

নিজস্ব প্রতিবেদন: ভারতের মাটিতে ভয়াবহ মৃত্যুর আবহের সূচনা করেছে করোনা। কোভিডে আক্রান্ত হয়ে বহু মানুষের অকালমৃত্যু ঘটছে। পশ্চিমবঙ্গের মাটিতেও যথেষ্ট তান্ডব চালাচ্ছে এই মহামারী। তার উপর একুশের ভোটে যথেষ্ট পরিমাণে রাজনৈতিক জনসভায় এবং রোড শো এই মহামারীর সংক্রমণকে আরো বাড়িয়ে তুলেছে বলে মনে করছেন সকলেই।

অনেকেই বলছেন যে নির্বাচন কমিশনের এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে উচিত হয়নি এতগুলি দফায় রাজ্যে ভোট গ্রহণ করার। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দিয়েছিলেন যে শেষ দুই দফার ভোট ১ দফাতেই সম্পন্ন করে দিতে। কিন্তু তার এই নিবেদনে কর্ণপাত করেনি কমিশন। কয়েকদিন আগে পর্যন্ত বাংলার মাটিতে ব্যাপক পরিমাণে ঠাসাঠাসি ভিড়ের মধ্যে সম্পন্ন হয়েছে রাজনৈতিক নেতাদের জনসভা, মিটিং-মিছিল ,রোড শো ।

এই সমস্ত জনসভাগুলোতে দেখা যায়নি নির্দিষ্ট দূরত্ব বিধি। যার দরুন বাংলার মাটিতে আরো মৃত্যু বেড়ে গিয়েছে করোনার দরুন। শেষকালে নির্বাচন কমিশন হাইকোর্টের দ্বারা তিরস্কৃত হয়ে ঘোষণা করেছে যে বাংলার মাটিতে করা যাবে না আর কোন জনসভা, মিটিং-মিছিল, রোড শো। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার মাটিতে করোনার এই বাড়বাড়ন্তের জন্য প্রথম থেকেই নির্বাচন কমিশনের দিকে আঙুল তুলে আসছেন।

আরও পড়ুন-“সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট না করে ১০ টা বেডের ব্যবস্থা করুন।”- সুদীপা কে কটাক্ষ নেটিজেনদের।

তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেছেন যে, “নির্বাচন কমিশনকে বারবার চিঠি দেওয়া হয়েছে।‌ বারবার তাদের অনুরোধ করা হয়েছে যে শেষ চারটি দফার ভোট একসঙ্গে করা হোক, কিন্তু তারা আমাদের অনুরোধে কান দেয়নি। এটা নির্বাচন কমিশন আর নেই এটা হয়ে গিয়েছে এখন অমিত শাহ আর নরেন্দ্র মোদী কমিশন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রথম থেকেই বলছেন যে একদমই কেন্দ্রীয় সরকারের কথা শুনে চলছে নির্বাচন কমিশন।

গত ২২ শে এপ্রিল সম্পন্ন হয়েছে খড়দা বিধানসভা আসনের ভোটগ্রহণ। ঠিক তার আগের রাতেই করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে খড়দার তৃণমূল প্রার্থী কাজল সিন্‌হার। মৃত তৃণমূল প্রার্থী কাজল সিনহার মৃত্যুতে উপ নির্বাচন কমিশনারের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন কাজল বাবুর স্ত্রী। জানা গিয়েছে উপ নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা রুজু করেছেন তিনি। যদিও এ বিষয়ে কমিশন এখনো কোনো মন্তব্য করেনি।

Related Articles

Back to top button