রিমেক কুইন নেহা কক্করের গানে নেচে তুমুল ভাইরাল হলেন তৃণা সাহা!

রিমেক কুইন নেহা কক্করের গানে নেচে তুমুল ভাইরাল হলেন তৃণা সাহা!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-সম্প্রতি মাস দুয়েক আগেই বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন কৃষ্ণকলি খ্যাত অভিনেতা নীল ভট্টাচার্য এবং খড়কুটো ধারাবাহিক খ্যাত অভিনেত্রী তৃণা সাহা। দীর্ঘ কয়েক বছরের প্রেম সম্পর্কের পর গাঁটছড়া বেঁধেছেন তারা। বিয়ের আগে প্রায়শই সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের বিভিন্ন ভিডিও এবং ছবি ভাইরাল হতে দেখা যেত। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এই তারকা দম্পতির দুজনেই অত্যন্ত সক্রিয় নেট দুনিয়ায়। মুহূর্তের মধ্যেই তাদের শেয়ার করা বিভিন্ন ছবি বা ভিডিও ভাইরাল হয়ে ওঠে ইন্টারনেট মাধ্যমে।

এই দুই ব্যক্তিত্বকে বেশ পছন্দ করেন নেট নাগরিকরা। কৃষ্ণকলি এবং খড়কুটো দুটো ধারাবাহিকই খুব অল্প সময়ের মধ্যে মানুষের মন জয় করে নিয়েছে। যার ফলস্বরুপ বর্তমানে ‘তৃনীল’ জুটির জনপ্রিয়তা রয়েছে শীর্ষস্থানে। খড়কুটো ধারাবাহিকে পর্দার জগতে গুনগুন যেমন একটি অত্যন্ত চঞ্চল মেয়ের ভূমিকা পালন করছেন; ব্যক্তিগত জীবনেও অত্যন্ত খুনসুটি করতে ভালোবাসেন তিনি।সোশ্যাল মিডিয়ায় অত্যন্ত অ্যাক্টিভ এই অভিনেত্রী মাঝে মাঝেই নিজের নানান ধরনের ভিডিও শেয়ার করেন অনুরাগীদের সাথে।

খড়কুটো ধারাবাহিকের শুটিং এর সময়ে অনস্ক্রিন দুই ননদকে নিয়ে জমিয়ে টুম্পা গানে নাচ করেছিলেন তিনি। যা বেশ ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল দর্শকদের মধ্যে। পরবর্তী সময়ে নিজের আসল বিয়েতেও নীল ভট্টাচার্য’র সাথে এই গানে কোমর দুলিয়ে ছিলেন তৃণা।নিজের ইনস্টা হ্যান্ডেলে প্রতিদিনই তিনি একটা করে ভিডিও পোস্ট করেন। এর আগে টিকটকেও অত্যন্ত জনপ্রিয় ছিলেন তিনি। সম্প্রতি তার একটি ভিডিও বেশ শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

আরও পড়ুন-গান শুনে অরিজিৎ সিংকে উদ্দেশ্য করে টাকা ছড়িয়ে দিলেন দর্শক; গান থামিয়ে উচিত শিক্ষা দিলেন অরিজিৎ!তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

যেখানে নেহা কক্করের একটি গানের সঙ্গে তুমুল নাচ করতে দেখা যাচ্ছে তৃনাকে। নেহা কক্করের গাওয়া ‘ছক্ক লাগান দে’ গানটিতে অভিনেত্রীর এই নাচ সকলেরই বেশ পছন্দ হয়েছে।প্রসঙ্গত উল্লেখ্য কিছুদিন আগেই রাজনীতির ময়দানে স্বামী নীল ভট্টাচার্যকে নিয়ে প্রবেশ করেছেন তৃণা সাহা। প্রার্থী তালিকায় নাম না থাকলেও তৃণমূল কংগ্রেসের জন্য জোরকদমে প্রচার চালিয়েছেন তারা।কিছুদিন আগেই এক জায়গায় প্রচারে গিয়ে খেলা হবে গানে নাচতে দেখা গিয়েছিল এই তারকা দম্পতিকে।তৃণমূলে যোগদান করে ‘খড়কুটো’ ধারাবাহিক খ্যাত এই অভিনেত্রী বলেন,”দিদিকে সর্বপ্রথম ধন্যবাদ জানাব, উনি চেয়েছেন আমরা ওঁর পাশে থাকি, ওঁর জন্য কাজ করি। আমার নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে হচ্ছে।

আমাদের শিল্পীদের জন্য উনি অনেক করেছেন। আর্টিস্ট ফোরাম আজ ওঁর জন্যই দাঁড়িয়ে রয়েছে। এছাড়াও সাধারণ মানুষের জন্যও ওঁর অনেক অবদান, বিশেষত কোভিডের সময়, আমফানের সময়। উনি স্বাস্থ্যক্ষেত্রে অনেক উন্নতি করেছেন। কন্যাশ্রী, সবুজ সাথী সহ বহু উন্নয়ন মূলক প্রকল্প নিয়েছেন। উনি যেভাবে সকলের পাশে দাঁড়ান, সেটা সত্যিই অসম্ভব, তাও উনি একা মহিলা হয়েও সবকিছুকে সম্ভব করে দেখিয়েছেন।

তাই আমার মনে হয়েছে আমাদেরও ওঁর পাশে থাকা উচিত। আমি চাই ওঁর পাশে থেকে আমাদের দেশের, রাজ্যের উন্নয়ন করতে।দিদি ছিলেন আছেন ও থাকবেন। আমরাও ওঁর পাশে ছিলাম, আছি ও থাকব”।একই সুর শোনা যায়,স্বামী নীল ভট্টাচার্যের গলাতেও।তিনি বলেন,”এটা আমার কাছে ফ্যান বয় মোমেন্ট। যে মানুষকে দেখে বড় হয়েছি, যে মানুষকে দেখে অনুপ্রেরণা পেয়েছি, সেই মানুষের পাশে থাকার সুযোগ আমার কাছে সম্মানের।

আমার কাছে আজকের দিনটা স্বপ্নের মতো। আমার স্বল্প অভিনয় কেরিয়ারে প্রিয় দিদিকে সবসময় পাশে পেয়েছি। শুধু আমরা কেন, স্বাস্থ্য, শিক্ষা সবক্ষেত্রই দিদিকে পাশে পায়েছে। আজ আমি পার্থ দা-র পাশে বসে আছি, যে পার্থদা কিনা গোটা শিক্ষাক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন এনেছেন। কোভিডের সময় শিক্ষাক্ষেত্র উনি ডিজিটাল করে দিয়েছেন। সবমিলিয়ে আমি কৃতজ্ঞ”।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Trina Saha Bhattacharya (@trinasaha21)