নিউজদেশপলিটিক্স

“আজ সেই জরুরী অবস্থার কালো দিন।”- কংগ্রেসকে কটাক্ষ প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদন: সালটা ১৯৭৫। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের ক্ষমতা তখন কংগ্রেসের হাতে। ওই বছরেই সারা ভারত জুড়ে জারি হয়েছিলো জরুরী অবস্থা। আজ সেই জরুরী অবস্থার পর কেটে গিয়েছে ৪৬ বছরের পর্যায়কাল।

জরুরি অবস্থার সেই কালো দিনগুলির কথা স্মরণ করে আজ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইট করেছেন। তিনি ওই জরুরি অবস্থার কথা মনে করে লিখেছেন,”টানা ১৯৭৫ থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত দেশের গণতন্ত্রের কাল দিনগুলি সকলের সামনে প্রকাশিত হয়েছিল। ‌ সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলিকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছিল। ‌ ওই কালো দিনগুলিতে কংগ্রেস সারা ভারতের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে পায়ের নিচে মাড়িয়েছিল।

আরও পড়ুন-সরলো মুকুল রায়ের পথের কাঁটা। বিজেপির দাবী খারিজ করলেন স্পীকার

যারা ওই সময় গণতন্ত্রকে মানুষের কল্যাণার্থে বাঁচানোর জন্য প্রচেষ্টায় লিপ্ত ছিলেন তাদের সেই ভাবধারাকে আমরা সম্মান জানাই। ‌ ওই সময় ভারতীয় গণতন্ত্রের অন্যতম কালো দিন হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকবে। ওই ভয়াবহ দিনগুলিতে ভারতের জাতীয় কংগ্রেস স্বাধীনতা সংক্রান্ত সমস্ত বিষয় যেমন, দেশ প্রেমিক সিনেমা, রবীন্দ্রনাথ থেকে শুরু করে মমতা গান্ধী, সুভাষচন্দ্র বসুর বাণী সারা দেশজুড়ে নিষিদ্ধ করে দিয়েছিলো।

আরও পড়ুন-মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখের বাড়িতে তল্লাশি চালালো এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট

আজ আমরা সেই সমস্ত মানুষদের সম্মান এবং শ্রদ্ধা জানাই যারা ওই পর্যায়ে গণতন্ত্র বাঁচানোর জন্য নিজেদের জীবন পর্যন্ত দিয়েছেন।”প্রধানমন্ত্রীর সুরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেছেন, “ওই বছরগুলি ছিল সারা ভারতের পক্ষে ২১ টি মাসের এক নির্দয় এবং মর্মান্তিক শাসন পর্ব। গণতন্ত্রকে হত্যা করা হয়েছিলো।”প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে এখনও কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়নি ভারতের জাতীয় কংগ্রেস নেতৃত্ব।

Related Articles

Back to top button