নিউজকলকাতাপলিটিক্সরাজ্য

পশ্চিমবঙ্গে টীকার শংসাপত্র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি।

নিজস্ব প্রতিবেদন: করোনার ভ্যাকসিন নিলেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ছবি দেওয়া শংসাপত্র দিত কো উইন পোর্টাল। এই ভ্যাকসিন নেওয়ার শংসাপত্রের প্রধানমন্ত্রীর ছবি কেন থাকবে তা নিয়ে সরব হয়েছিলেন বিরোধীরা। ভোটের প্রচার এর হাতিয়ার হিসেবে প্রধানমন্ত্রী ছবি দেওয়া শংসাপত্র কে ব্যবহার করছে কেন্দ্রীয় সরকার এমনটাই অভিযোগ তুলেছিলেন দেশের বিরোধী নেতৃত্বরা।

কয়েকদিন আগেই ছত্তিশগড় এবং ঝাড়খন্ড সরকার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে যে ১৮ থেকে ৪৪ বছর বয়সীদের টীকা রাজ্য সরকারকেই যখন দিতে হচ্ছে তখন এই টীকার শংসাপত্রের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী দের ছবি দেওয়া থাকবে। ঠিক এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার‌ও। জানা গিয়েছে এবার থেকে ভ্যাকসিন নিলে স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে যে শংসাপত্র দেওয়া হবে সেই শংসাপত্রে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি এবং বার্তা দেওয়া থাকবে।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার এখনো পর্যন্ত ১৫০ কোটি টাকা খরচ করে অনেক সমস্যার মধ্যে পড়েও টীকা কিনেছে বলে জানা গিয়েছে। তাই রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে যে শংসাপত্র দেওয়া হবে তাতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি রাখা হচ্ছে। স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী ছবি দেওয়া থাকলে উপভোক্তাকে কোন রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না।রাজ্য স্বাস্থ্য বিভাগের অধিকর্তারা জানিয়েছেন, “টিকা নেওয়ার পর রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে টিকা গ্রহীতার কাছে একটি মেসেজ আসবে।

সেই মেসেজে থাকা লিঙ্কে ক্লিক করলেই শংসাপত্র পাওয়া যাবে। তবে কেন্দ্রের শংসাপত্র উপভোক্তা এবং স্বাস্থ্য কেন্দ্রের একটি ইউনিক নম্বর উল্লেখ করা থাকে এবং সেই সাথে দ্বিতীয় ডোজের তারিখের উল্লেখ থাকে। কিন্তু রাজ্যের শংসাপত্রে এগুলির উল্লেখ থাকে না। কেন্দ্রের দেওয়া শংসাপত্রে প্রধানমন্ত্রীর ছবি বাঁ দিকে থাকে। রাজ্য যে শংসাপত্র দিচ্ছে তাতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি রয়েছে ডান দিকে।”

পশ্চিমবঙ্গে টীকার শংসাপত্র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি।

Related Articles

Back to top button