এবার রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে উঠলো গুলি চালনার অভিযোগ

এবার রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে উঠলো গুলি চালনার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজ সকাল থেকেই ষষ্ঠ দফার নির্বাচনকে ঘিরে যথেষ্ট অশান্তির সূত্রপাত ঘটেছে। ব্যারাকপুরে তৃণমূল প্রার্থী রাজ চক্রবর্তীকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখিয়েছে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। তাকে ঘিরে জয় শ্রীরাম, এবং গো ব্যাক স্লোগান দিয়েছে বিজেপি কর্মীরা। এদিকে গলসির মনোহর সুজাপুর গ্রামে তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে যে তারা ভোটারদের ভোট দিতে দিচ্ছেনা। ‌ বিশাল কেন্দ্রীয় বাহিনী ওই এলাকায় গিয়েছে।

‌ বীজপুরে এক বিজেপি কর্মীর বাড়িতে ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে। ‌ অভিযোগ উঠেছে যে বিজেপি কর্মীর বৃদ্ধা মাকেও বেধড়ক মারধর করেছে তৃণমূল সমর্থকরা। এছাড়াও পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামে তৃণমূলের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ এনেছে বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা। ‌ ওই এলাকায় পুলিশকে ইট ছোঁড়ার অভিযোগ উঠেছে । আমডাঙায় রংমহল বুথের ২০০ মিটার দূরে উদ্ধার করা হয়েছে বেশ কয়েকটি তাজা বোমা।

আরও পড়ুন-নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দিল আগামী ১৩ ই মে হচ্ছে না মুর্শিদাবাদের দুই কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ। নতুন তারিখ ঘোষণা করল কমিশন।

এছাড়াও অশোকনগর এবং মঙ্গলকোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু এই অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।এবার রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে উঠেছে গুলিচালনার অভিযোগ। জানা গিয়েছে বাগদা এলাকায় পুলিশের সাথে খন্ডযুদ্ধ বেঁধে যায় গ্রামবাসীদের। পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুঁড়তে থাকে গ্রামবাসীরা।

পুলিশের গায়ে হাত তোলা হয়, উর্দি ছিঁড়ে দেওয়া হয়। এছাড়াও পুলিশকে যথেষ্ট আক্রমণ করা হয়। তখনই আত্মরক্ষার্থে গুলি চালাতে শুরু করে পুলিশ। পুলিশের গুলিতে তিনজন গ্রামবাসী আহত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তাদেরকে নিকটবর্তী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে‌। এই ঘটনায় সমগ্র এলাকা জুড়ে প্রবল চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।