নিউজটেক নিউজদেশ

এবার ভোটার কার্ডের সাথে আধার কার্ডের সংযুক্তিকরণের পথে এগোতে চলেছে কেন্দ্র।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বর্তমানে ভারতীয় নাগরিকদের অন্যতম সচিত্র পরিচয় পত্র হল আধার কার্ড । বিভিন্ন জায়গায় সচিত্র পরিচয় পত্র রূপে এই কার্ডের যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে। পাশাপাশি এই কার্ডে বায়োমেট্রিক তথ্য থাকার দরুন খুব সহজেই কার্ডধারীদের যাবতীয় তথ্য পাওয়া যায়। বর্তমানে ভারত সরকার খুব শীঘ্রই সারাদেশে এক দেশ এক রেশন কার্ড প্রকল্প শুরু করার জন্য প্রতিটি ভারতবাসীর আধার কার্ডের সাথে রেশন কার্ডকে সংযুক্ত করার কর্মসূচি সম্পন্ন করতে চলেছে ।

এবার ভুয়ো ভোটার রোধ করার জন্য খুব শীঘ্রই আধারের সাথে ভোটার কার্ডকে সংযুক্ত করার পথে হাঁটছে কেন্দ্র।আগেই আধার কার্ডের সাথে ভোটার কার্ডের সংযুক্তিকরণ এর প্রস্তাব দিয়েছিল ভারতের নির্বাচন কমিশন। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী কিরেন রিজিজু লোকসভায় এই বিষয়টি উত্থাপন করেছেন।নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে যে, দেশের জনগণের একটি বৃহৎ অংশের মানুষের কাছে একাধিক ভোটার কার্ড রয়েছে।

আরও পড়ুন-মুখ্যমন্ত্রীর ফোন ! বাংলার বন্যা পরিস্থিতিতে মৃত এবং আহতদের আর্থিক সাহায্য প্রধানমন্ত্রীর।

‌ অনেক ক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে যারা রাজ্যের বাইরে কাজ করতে চান তারা কাজ করতে গিয়ে সেই অঞ্চলের ঠিকানা দিয়ে একটি ভোটার কার্ড তৈরি করে ফেলেন আবার তার পুরানো ভোটার কার্ড তাঁর হাতে থেকে থাকে।‌ এরকম করে অনেকের কাছেই একের বেশি ভোটার কার্ডের অস্তিত্ব রয়েছে। নতুন কার্ড করালে পুরানো কার্ড কমিশনের কাছে জমা দেওয়ার নিয়ম রয়েছে কিন্তু সেইসব নিয়মের তোয়াক্কা করেন না কেউ। ‌ যার ফলে আধারের ভিত্তিতে ভোটারদের চিহ্নিত করার পরিপ্রেক্ষিতে আধার কার্ডের সাথে ভোটার কার্ডের সংযুক্তিকরণ আবশ্যক।

আরও পড়ুন-এককালীন ২৫ হাজার টাকা বিনিয়োগ করে ২৫ লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করুন। দুর্দান্ত স্কিম পোস্ট অফিসের।

‌ এমনিতেই গত ২০১৯ সালে নতুন ভোটারদের নথিভূক্তকরণের সময় আধার নম্বর চেয়েছিল নির্বাচন কমিশন। কিন্তু তৎকালীন সময়ে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দেয় ভোটার কার্ডের সাথে আধার কার্ডের নম্বর যোগ করা যাবে না। ‌ যার ফলে এই প্রক্রিয়ায় ইতিচিহ্ন পড়ে যায়।আজ রাজ্যসভায় আইনমন্ত্রী জানিয়েছেন, “কেন্দ্রীয় সরকার নির্বাচন কমিশনের প্রস্তাব খতিয়ে দেখছে।

‌ সেরকম হলে খুব শীঘ্রই সারা দেশজুড়ে আধার কার্ডের সাথে ভোটার কার্ডের লিঙ্ক করার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে।

Related Articles

Back to top button