এবার চুঁচুড়ার পর আসানসোলে বিক্ষোভের মুখে পড়লেন দিলীপ ঘোষ।

এবার চুঁচুড়ার পর আসানসোলে বিক্ষোভের মুখে পড়লেন দিলীপ ঘোষ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোটে তৃণমূল জয়লাভ করার পরেই উত্তপ্ত বাংলার রাজনৈতিক পরিস্থিতি। তৃণমূল সমর্থকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে বিজেপি কর্মীদের মারধর এবং তাদের বাড়ি ভাঙচুর করার । এছাড়াও জায়গায় জায়গায় বিভিন্ন বিজেপি কর্মীর বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। বিভিন্ন জেলায় জেলায় আক্রান্ত হয়ে চলেছেন বিজেপি কর্মীরা।

বেশিরভাগ ঘটনার ক্ষেত্রে এ অভিযোগের আঙুল উঠেছে তৃণমূল কর্মীদের দিকে। এই হিংসাত্মক পরিস্থিতিতে ভোট পরবর্তী সময়ে প্রাণ গিয়েছে প্রায় ১৬ জনের। এমনটাই জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।এদিকে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের মনে বাড়ছে প্রবল বিক্ষোভ।

আরও পড়ুন-“গরুর গাড়ির আবার হেডলাইট”- অভিষেকের পদোন্নতিতে কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেতা তথাগত রায়। প্রতিক্রিয়া তৃণমূলের।

বিজেপি কর্মী সমর্থকদের অভিযোগ যে তারা নিরন্তর মার খাচ্ছেন অথচ তাদের সুরক্ষার জন্য কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব। গত শুক্রবার হুগলির চুঁচুড়ায় বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে ঘিরে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখিয়েছে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা। সেখানে দিলীপ ঘোষকে দেখা গিয়েছে বিক্ষোভরত সমর্থকদের তিনি বলছেন, ‘চেঁচাবে না, ভদ্রভাবে কথা বলো। পার্টিটাকে কিনে নিয়েছো নাকি? ভদ্রভাবে কথা বলতে পারো না?” এদিকে এই আবহে একটি অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে যেটা কেন্দ্র করে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব রা বলছেন সম্পূর্ণ পূর্বপরিকল্পিতভাবে দিলীপ ঘোষের সামনে এই বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন-বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসার অভিযোগে বিধানসভার ভেতরে এবং বাইরে আন্দোলন করার হুঁশিয়ারি দিলীপ ঘোষের।

এবার চুঁচুড়ার পরে আসানসোলে দিলীপ ঘোষকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখালো বিক্ষুদ্ধ বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। আসানসোলে বৈঠক চলাকালীন বিক্ষুব্ধ বিজেপি কর্মীরা দিলীপ ঘোষের সাথে কথা বলতে চেয়েছিলেন। কিন্তু আলোচনা কক্ষের দরজা বন্ধ করে দেওয়ায় তাঁরা বাইরেই বসে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। বিক্ষুব্ধ বিজেপি কর্মীরা বলতে থাকেন , “আমাদের আলোচনা সভায় ঢুকতে দেয়ষি।

আরও পড়ুন-“বাংলায় আগুন জ্বলছে।”- ভাটপাড়া বোমাবাজি কান্ডে টুইট করে রাজ্য সরকারকে আক্রমণ রাজ্যপালের।

রাজ্য সভাপতি আমাদের অনেক প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কিন্তু একটাও প্রতিশ্রুতিই রক্ষা করেননি। রাজ্য সভাপতির কাছে আমরা জবাব চাইছি।”
চুঁচুড়ার পরে আসানসোলের মাটিতে এই বিক্ষোভে যথেষ্ট অস্বস্তিতে পড়েছে রাজ্য বিজেপি।