“যশ-নিখিলে পার্থক্য নেই। পুরুষ তো শেষ পর্যন্ত পুরুষ‌ই হয়।”- নুসরতের প্রেগনেন্সি প্রসঙ্গে পোস্ট করলেন তসলিমা।

“যশ-নিখিলে পার্থক্য নেই। পুরুষ তো শেষ পর্যন্ত পুরুষ‌ই হয়।”- নুসরতের প্রেগনেন্সি প্রসঙ্গে পোস্ট করলেন তসলিমা।

নিজস্ব প্রতিবেদন: টলিউডের অন্দরে এখন জোর জল্পনা যশ দাশগুপ্ত এবং নুসরত জাহানের সম্পর্ক ঘিরে। কয়েকমাস ধরেই রীতিমতো আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন তাঁরা। বর্তমানে প্রকাশ্যেই একসাথে ঘুরছেন তাঁরা। স্বামী নিখিল জৈনের সাথে খুব শীঘ্রই ডিভোর্স হতে চলেছে নুসরতের।

বসিরহাটের এই তৃণমূল সাংসদ এখন মজেছেন ‘যশে’। রাজনৈতিক ভাবে তাঁদের মতাদর্শ আলাদা হলেও এর প্রভাব পড়েনি তাদের সম্পর্কে। একে অপরের সাথে চুটিয়ে সময় কাটাচ্ছেন তাঁরা। পূজার ছুটিতে নাকি একসাথে রাজস্থান পাড়ি দিয়েছিলেন যশ-নুসরত।

আরও পড়ুন-নুসরতের মা হ‌ওয়ার খবরে আগাম শুভেচ্ছায় তাঁকে ভরিয়ে দিলেন নেটিজেনরা।

আবার দক্ষিণেশ্বর মন্দিরেও তাঁদের একসাথে পূজা দিতে যেতে দেখা গিয়েছিলো। এখন প্রকাশ্যেই তারা কার্যত সম্পর্কের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন।তবে এর‌ই মধ্যে জোর গুঞ্জন টলিউডের অন্দরে। জল্পনা উঠেছে যে নাকি মা হতে চলেছেন নুসরত জাহান।

তবে এই প্রসঙ্গে নুসরতের স্বামী নিখিল জৈন বলেছেন যে, তিনি এই ব্যাপারে কিছুই জানেন না। নিখিল বলেছেন, “আমার এই ব্যাপারে কিছু জানা নেই। আমরা দীর্ঘ কয়েকমাস ধরে একসাথে থাকিনা। আর যদি এখবর সত্যি হয় তাহলে আমি বলবো এই সন্তান অবশ্যই আমার নয়।

আরও পড়ুন-অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন নুসরত? “আমার সন্তান নয়।”- বললেন নুসরতের স্বামী নিখিল জৈন।

“এই আবহের মধ্যে অভিনেত্রী নুসরতের হয়ে ফেসবুকে কলম ধরেছেন বিখ্যাত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। তিনি লিখেছেন, “নুসরত প্রেগনেন্ট বলে খবর দেখছি সোশ্যাল মিডিয়ায়। মানুষ অনুমান করছে সন্তানের পিতা যশ, নিখিল নয়। নিখিল আর নুসরত দীর্ঘ ছয় মাস আলাদা থাকেন বলছেন।

যদি এমনটাই হয় তাহলে নিখিল এবং নুসরতের ডিভোর্স হয়ে যাওয়াটা ভালো তাতে দুজনই স্বস্তি পাবেন। দুই ধর্মের মানুষের মধ্যে বিয়ে হলে আমি খুবই পুলকিত হয়ে উঠি। নিখিল এবং নুসরতের বিয়েতে তাই আমি খুবই খুশী হয়েছিলাম। নুসরতকে দেখতে অনেকটা অ্যাঞ্জেলিনা জোলির মতোই।

মেয়েটি অবশ্যই স্বনির্ভর। স্বনির্ভর হলে এবং আত্মবিশ্বাস, আত্মসম্মানবোধ থাকলে নিজের সন্তানের অভিভাবক নিজেই হয়ে ওঠা যায়। এর জন্য পুরুষের সাহায্যের দরকার লাগে না। একজনের সাহচর্য ছেড়ে অন্য একজনকে বিয়ে করে জীবনে সুখ পাওয়া যাবে সেটা নয়।

আরও পড়ুন-মিমির কোলে এলো চিকু জুনিয়র। তার মধ্যেই হারানো চিকুকে ফিরে পাওয়ার আশা মিমির।

তাই নিজের সন্তানকে নিজের পরিচয়েই বড় করা যাবে। নিখিল এবং যশ এর মধ্যে কি আর পার্থক্য রয়েছে? একজন পুরুষ তো শেষ পর্যন্ত পুরুষ‌ই।”