“রাজ্যে টীকাকরণে দেখা দিচ্ছে বিস্তর গরমিল”- অভিযোগ শুভেন্দুর।

“রাজ্যে টীকাকরণে দেখা দিচ্ছে বিস্তর গরমিল”- অভিযোগ শুভেন্দুর।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সারা রাজ্য জুড়ে রীতিমতো ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে করোনা ভাইরাস। তবে গত কয়েকদিন ধরেই দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা হলেও কমেছে বলে জানা গিয়েছে। এখনো পর্যন্ত বাংলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১৩ লক্ষ ৮৫ হাজার ৮০১ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৫ হাজার ৬৭৮ জনের। সুস্থ্য হয়েছেন ১২ লক্ষ ৯১ হাজার ৫১০ জন। গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯,৪২৪ জন। গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ১৩৭ জনের।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গত সোমবার বলেছেন যে, “সারা ভারতের মধ্যে এখনো টীকা দেওয়ায় শীর্ষস্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। এখনো পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গের ১ কোটি ৪১ লক্ষ মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ১.১ কোটি মানুষকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ৪০ লক্ষ মানুষকে। ১১৪ কোটি টাকা খরচ করে মে মাসে ১৮ লক্ষ এবং জুন মাসে আরো ২২ লক্ষ ডোজ কিনেছে রাজ্য।

আরও পড়ুন-কেন্দ্রীয় সরকারের প্রবল আপত্তিতে করোনার নতুন ভারতীয় ভেরিয়েন্টের নাম পাল্টে দিলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

“কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণার পরেই রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী অভিযোগ করেছেন যে রাজ্যে টিকাকরণ প্রক্রিয়ায় বিস্তর গরমিল দেখা দিচ্ছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন কে ফোন করে এই আশঙ্কার কথা উল্লেখ করেছেন এমনটাই টুইটারে জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

আরও পড়ুন-করোনার দৈনিক সংক্রমণের মধ্যে রেকর্ড পতন। আশায় বুক বাঁধছেন তামাম ভারতীয়রা

শুভেন্দু অধিকারী গত মঙ্গলবার টুইট করে বলেছেন, “রাজ্যের বুকে ভ্যাকসিনের বণ্টনে বিস্তর গরমিল দেখে যথেষ্ট চিন্তাগ্রস্ত রয়েছি। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন কে এই বিষয়ে জানিয়েছি। উনার পরামর্শ অনুযায়ী সমস্ত ঘটনার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট আমি খুব শীঘ্রই পাঠাতে চলেছি।”শুভেন্দু অধিকারীর এই অভিযোগ ঘিরে এখনও কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেস।