নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“বাংলায় করোনার সংক্রমণ বাড়ানোর চক্রান্ত হচ্ছে”- ভ্যাকসিন যোগানের অপ্রতুলতায় মন্তব্য ফিরহাদের

নিজস্ব প্রতিবেদন: কলকাতায় লাগাতার ভ্যাকসিন সংকট জারি রয়েছে। জানা গিয়েছে আজ শনিবার কলকাতার পৌরসভা এলাকায় কোভিশিল্ডের ডোজ দেওয়া বন্ধ থাকছে। এই মর্মে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগে সরব হয়েছেন পরিবহন মন্ত্রী তথা পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর শীর্ষনেতা ফিরহাদ হাকিম। গতকাল কলকাতা পুরসভার ৫০ টি মেগা সেন্টার এবং ১০২ টি প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভ্যাকসিনের ডোজ দেওয়া বন্ধ ছিল।

জানা গিয়েছে আজ শনিবার‌ও বন্ধ থাকবে টীকাকরণ। কিন্তু এই পরিস্থিতির উদ্রেক হয়েছে কেন? এই প্রসঙ্গে কলকাতা পুরসভার প্রশাসক মন্ডলী প্রধান ফিরহাদ হাকিম কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন । তিনি সরব হয়ে অভিযোগ করেছেন,”বাংলায় করোনার সংক্রমণ বাড়ানোর চক্রান্ত করছে কেন্দ্রীয় সরকার। একটা অপদার্থ প্রধানমন্ত্রী দেশের শীর্ষ ক্ষমতায় আসীন হয়েছেন। ‌

আরও পড়ুন-“রাজ্যে খুব দ্রুত উপনির্বাচন”- গতকাল নির্বাচনী আধিকারিকের দপ্তরে গেল তৃণমূল

বিগত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে তিনি করোনা নিয়ে রাজনীতি করে আসছেন। এখনো পর্যন্ত সারা দেশের মধ্যে কত পরিমাণে ভ্যাকসিন এর প্রয়োজন সেই মর্মে তিনি কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি। সেই সাথে তিনি কোনো রকম শ্বেতপত্র প্রকাশ করেননি। কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে যে ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে সেটাই আমরা দিচ্ছি।

কেন্দ্রীয় সরকার সমগ্র সাপ্লাই চেন টা বন্ধ করে দিয়েছে। যার জন্য ভ্যাকসিনের এই সংকট শহরজুড়ে অব্যাহত রয়েছে।”রীতিমতো উদ্বেগজনক পরিস্থিতির কলকাতায়। ‌ কলকাতা পুরসভার সেন্ট্রাল স্টোরে দেখা গিয়েছে একটিও কোভিশিল্ডের ডোজ সেখানে নেই।

আরও পড়ুন-“মহিলাদের ডিজিটাল শিক্ষার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার কি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে?”- স্মৃতি ইরানিকে প্রশ্ন করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

আগামী ৮ ই আগস্ট কিছু পরিমাণে ভ্যাকসিন বাংলায় পাঠানো হতে পারে এমনটাই জানা গিয়েছে। কিন্তু জানা গিয়েছে আগামী ১১ ই আগস্টের আগে কলকাতায় যথেষ্ট পরিমাণে কোভিশিল্ডের ডোজ এসে পৌঁছাবে না। সিরাম ইনস্টিটিউট এখন‌ও কোভিশিল্ডের ডোজ কতটা পাঠানো হবে, সেই সম্পর্কে কিছু জানায়নি।সারা শহর জুড়ে ভ্যাকসিনের এই অপ্রতুলতায় যথেষ্ট আতঙ্কিত হয়েছেন মানুষজন।

Related Articles

Back to top button