নিউজটেক নিউজরাজ্য

আবর্জনার স্তূপে পড়ে রয়েছে রাশি রাশি আধার কার্ড। চাঞ্চল্যকর ঘটনা পশ্চিমবঙ্গের একটি জেলায়।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বর্তমানে প্রতিটি ভারতের অন্যতম সচিত্র পরিচয় পত্র রূপে গণ্য হচ্ছে আধার কার্ড। ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট খোলা থেকে শুরু করে স্কুল কলেজে ভর্তি, গ্যাসের কানেকশন, পোস্ট অফিসের যে কোনো কাজ সবেতেই এখন আধার কার্ড হল অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি সচিত্র পরিচয়পত্র। তবে অনেক ক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে আধার কার্ডে বিভিন্ন ভুলভ্রান্তির জন্য যথেষ্ট হয়রানির মুখে পড়তে হয়েছে মানুষজনকে। এই আবহের মধ্যে একটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের একটি জেলায়।

এই ঘটনাটি ঘটেছে শিলিগুড়ি ইস্টার্ন বাইপাস সংলগ্ন এলাকায়। ‌ ওই এলাকায় একটি ফাঁকা জমিতে আবর্জনা শুকোতে দেন কাগজ কুড়ানিরা। সেইমতো গতকাল‌ও এই আবর্জনা তারা শুকোতে দিয়েছিল। ‌ তখন ঐ আবর্জনার স্তূপের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন স্থানীয় ব্যবসায়ী রাজু ঘড়াই।

আরও পড়ুন-মার্কশিট পাওয়া যায়নি। কলেজে ভর্তি হতে গিয়ে সমস্যায় পড়ছেন আইএসসি দ্বাদশ উত্তীর্ণরা।

তখনই হঠাৎ তার চোখ চায় আবর্জনার স্তূপের দিকে। তখনই তিনি দেখতে পান আবর্জনার মধ্যে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে বহু আধার কার্ড, সেই সাথে রয়েছে বিভিন্ন ব্যাংকের পাস বই এবং এটিএম কার্ড । ব্যাপারটি ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করেন রাজু। একটি আধার কার্ড তুলে নিয়ে সেই আধার কার্ডের গায়ে লেখা মোবাইল নম্বরে ফোন করেন রাজু। ‌

সাথে সাথে ওই ব্যক্তি সংশ্লিষ্ট এলাকায় এসে হাজির হন। সেখানে হাজির হয়ে তিনি আবর্জনার স্তুপ এর মধ্যে নিজের মেয়ের আধার কার্ড পেয়ে যান। ওই ব্যক্তির নাম হল দীপু অধিকারী। তিনি বলেছেন,”পোস্ট অফিসে বহুবার খোঁজ নিয়েছি কিন্তু এখনো আমার আর মেয়ের আধার কার্ড পাইনি।

আরও পড়ুন-রাজ্যে সূত্রপাত হল উপনির্বাচনের প্রস্তুতির।

সেই আধার কার্ড এখানে আবর্জনার স্তুপের মধ্যে পড়ে রয়েছে। দেখুন সরকারের কি জঘন্য গাফিলতি।”এই ঘটনার সাথে সাথে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে এলাকায়। ‌ খবর দেওয়া হয় পুলিশে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ওই আবর্জনার স্তুপ থেকে সমস্ত আধার কার্ড, ব্যাংকের পাস বই, এবং এটিএম কার্ড গুলি উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ। কিভাবে এই আধার কার্ড গুলি আবর্জনার স্তূপে এসে পৌঁছালো এবং কাগজ কুড়ানিরা কিভাবে ওই আধার কার্ড গুলি পেলেন , সেই বিষয়ে তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button