“বাংলার মহিলারাই মুখ্যমন্ত্রীকে বিসর্জন দেবেন”- বললেন দিলীপ ঘোষ।

“বাংলার মহিলারাই মুখ্যমন্ত্রীকে বিসর্জন দেবেন”- বললেন দিলীপ ঘোষ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাংলায় করোনার এই ভয়াবহ আবহে শেষ দফার নির্বাচনগুলি এক দফাতেই সম্পন্ন করার জন্য নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কমিশন তাঁর এই অনুরোধ নাকচ করেছে। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর এই অনুরোধ প্রসঙ্গে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, “যারা খেলা হবে বলে শুরু করেছিল তারা এখন খেলা ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছে। ‌

বিজেপি একুশের ভোটে পাঁচ দফায় ১৮০ টি আসনের মধ্যে ১২৫ টির‌ও বেশী আসনে জিতবে। ২০০ টি সিট পেয়ে বিজেপি এবারে সরকার গঠন করবে। তৃণমূল বলছে তিন দফার ভোট একসাথে করে দিতে। ‌ আসলেই মিটিং করতে গেলে অনেক বক্তা লাগবে, কিন্তু ভয়ে কেউ বের হতে চাইছে না। ম্যাচের রেজাল্ট নির্ধারিত হয়ে গিয়েছে। ‌ আমরা খালি সময়টা পূরণ করব। তৃণমূল এখন হেরে গিয়েছে এটা বিলক্ষণ বুঝতে পেরেছে, তাই তারা ভোট ছেড়ে পালিয়ে যেতে চাইছে।

আরও পড়ুন-করোনায় আক্রান্ত ওষুধ ব্যবসায়ীর মৃতদেহ দীর্ঘক্ষণ পড়ে বাড়ির বারান্দায়। ভয়াবহ ঘটনা কৃষ্ণনগরে।

“গতকাল দিলীপ ঘোষ আবার মুখ্যমন্ত্রী কে আক্রমণ করে বলেছেন, “বাংলার মহিলারা অত্যাচারিত হয়েই মমতা ব্যানার্জিকে বাংলার সিংহাসনে বসিয়েছিলেন। তাঁরাই এবার তাঁর বিসর্জন দেবেন, সেই ব্যবস্থা হয়ে যাচ্ছে। মহিলারা সব জায়গায় ভয়, অত্যাচারকে উপেক্ষা করেও উৎসাহের সাথে ভোট দিচ্ছেন। তাঁরাই এবারে এই ভোটে নির্ণায়ক ভূমিকা নেবেন।

তৃণমূল শেষ কেল্লা বাঁচানোর চেষ্টা করছে। এবারের নির্বাচনে কোথাও কাউকে আটকাতে পারেনি তৃণমূল। কলকাতার মানুষ‌ও ভয় উপেক্ষা করেও ভোট দিতে বেরোবেন। বিজেপিকে আটকানো যাবেনা, পাবলিক কে আটকানো যাবেনা।”