কমিশনের কাছে সপ্তম ও অষ্টম দফার ভোট একসঙ্গে করার দাবি জানালো তৃণমূল।

কমিশনের কাছে সপ্তম ও অষ্টম দফার ভোট একসঙ্গে করার দাবি জানালো তৃণমূল।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাংলা তথা ভারতের মাটিতে আবার ভয়াবহ সন্ত্রাসের সূচনা করেছে করোনা ভাইরাস। গত মাসের তুলনায় এই মাসে প্রায় ২৭ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে এই মহামারি । বাংলার মাটিতে এখনো পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লক্ষ ৬৮ হাজার ৩৫৩ জন। মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন ১০ হাজার ৬০৬ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬ লক্ষ ৪ হাজার ৩২৯ জন।

এই আবহে বাংলায় নির্বাচন স্থগিত রাখার আর্জি জানিয়ে নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিয়েছেন কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী। বিজেপি থেকে শুরু করে তৃণমূল এর জনসভায় কাতারে কাতারে ভিড় জমাচ্ছেন বহু মানুষ। এই ভিড়ের মধ্যে অনেকেই মুখে মাস্ক পরছেন না, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখছেন না। যার ফলে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। এই আবহে যাতে তিনদফার ভোট এক দফাতেই সম্পন্ন করে দেওয়া যায় তার জন্য নির্বাচন কমিশনে অনুরোধ জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন-“ফের পরিযায়ীরা হাঁটতে শুরু করেছে। কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য কে দোষারোপ করা ছাড়া ওদের সাহায্য করবেন কি?”- করোনা আবহে পরিযায়ীদের স্বপক্ষে মুখ খুললেন রাহুল গান্ধী।

কিন্তু নির্বাচন কমিশন তার এই অনুরোধে কর্ণপাত করেনি। তৃণমূল ঘোষণা করেছে যে বাংলার মাটিতে আর কোনো বড় জনসভা করবে না তারা। বাম সংযুক্ত মোর্চা আগেই ঘোষণা করেছিল যে, তারাও আর কোন জনসভা বাংলায় করবে না পরিবর্তে তারা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করবে এবং বাড়ি বাড়ি প্রচার করবে।

আবার একবার সপ্তম ও অষ্টম দফার ভোট একসাথে সম্পন্ন করার দাবি জানালো তৃণমূল। আজ মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক এর দপ্তরে গিয়েছিল তৃণমূলের প্রতিনিধিদল। সেখানে আবার নির্বাচন কমিশনের কাছে তৃণমূল আবেদন জানিয়েছে যে করোনার ভয়াবহ এই আবহে আগামী সপ্তম এবং অষ্টম দফার নির্বাচনকে একসাথে করার জন্য।