নিউজপলিটিক্সরাজ্য

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খেলা হবে কর্মসূচির আগেই মাঠে নামছে রাজ্য বিজেপি

নিজস্ব প্রতিবেদন: নেতাজি ইন্ডোরের মঞ্চ থেকে ফুটবল ছুঁড়ে দিয়ে রাজ্যে খেলা হবে দিবসের সূত্রপাত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী আগেই ঘোষণা করেছেন যে রাজ্যজুড়ে আগামী ১৬ ই আগস্ট ‘খেলা হবে দিবস’এর সূচনা ঘটতে চলেছে। নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে বাংলার ফুটবলের সর্বময় নিয়ামক সংস্থা আইএফএ’র অধীনস্থ ক্লাবগুলোকে ফুটবল উপহার দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন,”বাংলায় কিছুটা খেলা হয়েছে আরো খেলা বাকি আছে। ‌

আগামী ১৬ ই আগস্ট দেশজুড়ে খেলা হবে। খেলাধূলার জগতে আগামী ১৬ ই আগস্ট একটা গুরুত্বপূর্ণ দিন। এক লক্ষ গরিব ক্লাবগুলোকে আমি ফুটবল বিতরণ করব। মনে রাখবেন এই খেলা হবে স্লোগানটি আজ বাংলার গর্ব বলে ভূষিত হয়েছে। “

আরও পড়ুন-জামিনে ছাড়া পাওয়ার আগেই ফের গ্রেফতার শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ রাখাল বেরা

একুশের শহীদ দিবসে ভার্চুয়াল মঞ্চ থেকেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে খেলা হবে দিবস পালন করার কথা ঘোষণা করেছিলেন।এদিকে তৃণমূলের খেলা হবে দিবসের পাল্টা দিয়ে আগামী ১৩ ই আগস্ট থেকেই আসরে নামছে রাজ্য বিজেপি। ঐদিন বাংলার সমস্ত জেলায় কবাডি অথবা ফুটবল প্রতিযোগিতা আয়োজনের নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। ‌ এছাড়াও আগামী ৯ ই আগস্ট থেকে আগামী ১৬ ই আগস্ট পর্যন্ত রাজ্যের মাটিতে নানান কর্মসূচি পালন করতে চলেছে বিজেপি।

আরও পড়ুন-অভিষেকের উপর হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে টুইট করতেই মুকুল রায়কে ট্রোল শুরু করলো নেটিজেনরা।

‌ জানা গিয়েছে আগামী ৯ ই আগস্ট শহীদ দিবস পালন উপলক্ষে বিজেপির যুব মোর্চা মশাল মিছিল বার করবে। ‌ ওই দিনে বিজেপির তফশিলি মোর্চা বিশ্ব আদিবাসী দিবস পালন করবে। আগামী ১০ ই আগস্ট রাজ্যজুড়ে সমস্ত মনীষীদের মূর্তি যেখানে যেখানে স্থাপন করা আছে সেই সমস্ত মূর্তি পরিষ্কারের উদ্যোগ গৃহীত হয়েছে। এরপর আগামী ১১ ই আগস্ট ভোট পরবর্তী হিংসায় মৃত বিজেপি কর্মীদের বাড়ি যাবেন বিজেপি নেতৃত্বরা, এবং সেইসাথে রাজ্যের সমস্ত জায়গায় একটি করে গাছ পুঁতবেন তারা।

আরও পড়ুন-দুঃস্থ মানুষদেরকে সাথে নিয়ে সোহম চক্রবর্তী ইলিশ চিংড়ির উৎসব পালন করলেন বরাহনগরে।

এরপর আগামী ১২ ই আগস্ট বিজেপির মহিলা মোর্চার উদ্যোগে রাজ্যের সর্বোচ্চ আইন অমান্য আন্দোলন হবে। আগামী ১৩ ই আগস্ট হবে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। ‌আগামী ১৪ ই আগস্ট রাজ্যের ছটি গুরুত্বপূর্ণ শহরে একটি আলোচনা পর্ব সম্পন্ন হবে। ‌ পরদিন ১৫ ই আগস্ট পালিত হবে স্বাধীনতা দিবস।

শেষদিন অর্থাৎ আগামী ১৬ ই আগস্ট রাজ্যের সর্বত্র ‘পশ্চিমবঙ্গ বাঁচাও দিবস’ পালন উপলক্ষে রাজ্যের প্রতিটি জেলায় মিছিল বার করবে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।

Related Articles

Back to top button