“কেন্দ্রীয় বাহিনী নয়, গোলমালের উৎস মুখ্যমন্ত্রীর ভাষণ।”- বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

“কেন্দ্রীয় বাহিনী নয়, গোলমালের উৎস মুখ্যমন্ত্রীর ভাষণ।”- বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোট ঘিরে তুমুল উত্তেজনা বাংলার আকাশে বাতাসে। নির্বাচন কমিশন স্বচ্ছ এবং অবাধ নির্বাচনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছিল কিন্তু সেসব ঘোষণাই সার। প্রথম দফার নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হলেও তার পরের দফা গুলি থেকে রাজ্যের আনাচে-কানাচে হিংসা হানাহানির প্রতিচ্ছবি উঠে এসেছে। আজ কোচবিহারের শীতলকুচির একটি ঘটনা নাড়িয়ে দিয়েছে রাজ্যের রাজনৈতিক আবহকে।

কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও করতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ৪ জন তৃণমূল সমর্থক। কেন্দ্রীয় বাহিনী জানিয়েছে এলাকায় গন্ডগোলের খবর পেয়ে তারা যখন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় তখন তাদের ঘিরে ধরে আক্রমণ করতে উদ্যত হয় প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ জন তৃণমূল সমর্থক। তখনই নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী আত্মরক্ষার্থে গুলি চালায় কেন্দ্রীয় বাহিনী। এই ঘটনায় রাজ্য জুড়ে প্রবল আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে । তৃণমূল জানিয়েছে, তারা আগামীকাল কালা দিবস পালন করবে।

আরও পড়ুন-‘আরাধ্যার কাছে মিস ওয়ার্ল্ড ঐশ্বর্যর মতো নার্স আছে’; নিজের ছেলের বউকে নার্স বলে বিতর্কে জয়া বচ্চন!

এদিকে এই ঘটনার প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কৃষ্ণনগরের জনসভা থেকে বলেছেন, “সম্পূর্ণ মুখ্যমন্ত্রী প্রত্যক্ষ প্ররোচনায় এই ঘটনা ঘটেছে। কেন্দ্রীয় বাহিনী আরো চার রাজ্যে ভোট করিয়েছে শান্তিপূর্ণভাবে, কোথাও কোনো ঘটনা ঘটেনি, কেউ কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রতি কোন অভিযোগের আঙুল তোলেনি, যত সমস্যা আপনার। আসলে এর পিছনে রয়েছে আপনার হিংসার রাজনীতি। ছাপ্পা ভোট করাতে না পারার জন্যেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর দিকে আঙুল তুলছেন আপনি। এবার আপনার হিংসার রাজনীতি , কাটমানির রাজনীতি বন্ধ হবে।”