নিউজঅফবিটরাজ্য

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মাথায় উপর দেওয়া হল জুতোর বিজ্ঞাপন। লজ্জাজনক ছবি রাজ্যের মাটিতে।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তিনি শুধুমাত্র বাংলার নয় তিনি সারা দেশের গর্ব। দেশের সাহিত্য ভান্ডারকে তিনি তার অপূর্ব লেখনীশক্তির মাধ্যমে সমৃদ্ধ করেছেন। তাঁর সৃষ্ট লেখা গুলি যুগ যুগান্ত ধরে সাহিত্য জগতে অমূল্য সৃষ্টিরূপে বিবেচিত হয়ে আসছে।

রবীন্দ্রনাথ ছিলেন নোবেলজয়ী এমন একজন প্রতিভাবান কবি, যার মতো দ্বিতীয় কবি ভারতের বুকে তথা সারা পৃথিবীর বুকে আর সৃষ্টি হয়নি। কিন্তু এ হেন সেই রবীন্দ্রনাথকেই দূর্গাপুরের মাটিতে চরম অপমান করার অভিযোগ উঠেছে।রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মূর্তির ঠিক মাথার উপরে লাগানো হল জুতোর বিজ্ঞাপন। আবার এই জুতোর বিজ্ঞাপন লাগিয়েছে দূর্গাপুর নগর নিগম।

আরও পড়ুন-তেরঙা আলোয় সাজলো শ্রীনগরের লাল চক।

দূর্গাপুর সিটি সেন্টারের সামনে রবীন্দ্রনাথকে তাঁর প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত হয়েছিলেন বেশ কয়েকজন রবীন্দ্র প্রেমীরা। তখন‌ই তাঁরা লক্ষ্য করেন যে রবীন্দ্রনাথের মাথার উপরে লাগানো রয়েছে একটি জুতোর বিজ্ঞাপন। ঘটনাস্থল থেকে রীতিমতো গর্জে ওঠেন সমস্ত মানুষজন। এই বিষয়টি জানতে পেরেছেন দুর্গাপুরের ডেপুটি মেয়র অনিন্দিতা মুখোপাধ্যায়।

তিনি রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন , “বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মূর্তি মাথায় জুতোর বিজ্ঞাপন লাগানোর ঘটনাটি সম্পর্কে আমি জানতে পেরেছি। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা । কার নির্দেশে এবং পরিচালনায় নগর নিগমের হোর্ডিং দপ্তর এই বড়ো হোর্ডিং বসিয়েছে সেটা তদন্ত করে দেখা হবে। সামনে একটি রেস্টুরেন্ট নিয়েও যথেষ্ট অভিযোগ জমা পড়েছে।

আরও পড়ুন-আজ নতুন ইতিহাস গড়তে চলেছে ভারত। ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে UNSC এর বৈঠকে সভাপতিত্ব করতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”জানা গিয়েছে ওই রেস্টুরেন্টে প্রতিদিন যে সমস্ত খাবার বেঁচে যায় অথবা উচ্ছিষ্ট খাবার গুলি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মূর্তি আশেপাশে ফেলে যথেষ্ট নোংরা করা হচ্ছে। এর ফলে দূর্গন্ধে ওই এলাকা দিয়ে চলাফেরা করা রীতিমতো দায় হয়ে পড়েছে এলাকাবাসীর। এছাড়াও জানা গিয়েছে বর্ষার সময় মূর্তির উপর দিয়ে এমনভাবে আচ্ছাদন খাটিয়ে দেওয়া হয়, যাতে দেখতে বড়ই দৃষ্টিকটু লাগে।

এই সমস্ত কিছুর কড়া ভাষায় প্রতিবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসীরা। দুর্গাপুরের ডেপুটি মেয়র অনিন্দিতা মুখোপাধ্যায় আশ্বাস দিয়েছেন যে খুব শীঘ্রই উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Related Articles

Back to top button