বারাসাতে প্রধানমন্ত্রীর সভা হতে চলেছে। কিন্তু বাতিল হয়ে গেল মুখ্যমন্ত্রীর রাজনৈতিক কর্মসূচি।

বারাসাতে প্রধানমন্ত্রীর সভা হতে চলেছে। কিন্তু বাতিল হয়ে গেল মুখ্যমন্ত্রীর রাজনৈতিক কর্মসূচি।

নিজস্ব প্রতিবেদন: তিনি অক্লান্ত, অকুতোভয়। তিনি সমস্ত কিছু বাধা বিপত্তি তুচ্ছ করে এগিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর। তাই তো পায়ের আঘাত উপেক্ষা করেও তিনি গত একমাস সমানে হুইল চেয়ারকে সঙ্গী করে ছুটে চলেছেন জেলা থেকে জেলায়। কিলোমিটারের পর কিলোমিটার রোড শো করছেন, ক্ষুরধার বক্তৃতায় ধরাশায়ী করছেন প্রতিপক্ষকে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগামী ৫ টি দফা নির্বাচনের আগেই নিজেকে সম্পূর্ণ নিয়োজিত রেখেছেন মানুষের জনসমর্থন আদায়ের উদ্দেশ্যে।

বিভিন্ন জনসভা থেকে তিনি আক্রমণ শানিয়ে চলেছেন বিজেপিকে। সেইসাথে বাংলার জনমানুষের উদ্দেশ্যে তিনি বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্পের কথাও বলছেন। এদিকে কোচবিহারের শীতলকুচির ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী কড়া ভাষায় আক্রমণ শানিয়েছেন বিজেপির বিরুদ্ধে। তিনি সরাসরি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ কে কাঠগোড়ায় তুলেছেন এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে। তিনি আগে থেকেই বলে আসছেন যে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী কাজ করছে নির্বাচন কমিশন।

আরও পড়ুন-“সিঙ্গুর নন্দীগ্রাম কাণ্ডে সিপিএমের কি হাল হয়েছিল আপনারা জানেন”- জনসভা থেকে হুঙ্কার অভিষেকের

আজকেই বারাসতের বুকে জনসভা করার কথা ছিলো প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং তার ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে জনসভা করার কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। কিন্তু শীতলকুচি ঘটনার পর রাজ্যের রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত একথা আঁচ করতে পেরে মুখ্যমন্ত্রীর জনসভা বাতিল করে দিল নির্বাচন কমিশন। আজ সকাল ১১ টা নাগাদ বারাসাত স্টেডিয়ামে জনসভা করবেন মুখ্যমন্ত্রী এমনটাই কথা ছিল।

আরও পড়ুন-আত্মরক্ষার তাগিদে গুলি চালিয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী।”- ছবি প্রকাশ করে দাবি করলেন শুভেন্দু অধিকারী

অন্যদিকে কাছারি ময়দানে আজ দুপুর ৩ টে থেকে জনসভা হ‌ওয়ার কথা প্রধানমন্ত্রীর। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা বাতিল করে দিয়েছে কমিশন। জানা গিয়েছে আগামীকাল বারাসাত স্টেডিয়ামে সকাল ১১ টা থেকে মুখ্যমন্ত্রীর সভা শুরু হবে। ঢিল ছোঁড়া দূরত্বের মধ্যেই মহারথীর এই জনসভাকে ঘিরে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার সৃষ্টি হতে পারে এই বিপদ আন্দাজ করেই মুখ্যমন্ত্রীর জনসভা বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন।তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জনসভা যথা সময়েই সম্পন্ন হবে।