নিউজপলিটিক্সভাইরাল & ভিডিও

অলিম্পিকে অংশগ্রহণকারীদের সংবর্ধনা মঞ্চে বেশিরভাগ জায়গাজুড়ে প্রধানমন্ত্রীর মুখ। ব্যাপক ট্রোলিং সোশ্যাল মিডিয়ায়

নিজস্ব প্রতিবেদন: টোকিও অলিম্পিকে কুস্তি, হকি, ব্যাডমিন্টন, ওয়েট লিফটিংয়ে ভারত পদক জিতেছে। কুস্তিতে ভারতকে ব্রোঞ্জ এনে দিয়েছেন ভারতের অন্যতম কুস্তিগীর বজরং পুনিয়া। সারা ভারত উচ্ছ্বসিত বজরংয়ের এই কৃতিত্বে। এর আগে ভারতকে ব্রোঞ্জ এনে দিয়েছেন শাটলার পি ভি সিন্ধু, পুরুষ হকি দল।

ওয়েট লিফটার মীরাবাঈ চানু রুপো এনে দেশকে গর্বিত করেছেন।গত শনিবার দেশকে আরেকটি ব্রোঞ্জ এনে দিয়েছেন বজরং পুনিয়া। নীরজের জ্যাভলিন থ্রো গত শনিবার প্রথম টোকিও অলিম্পিকে সোনা এনে দিয়েছে ভারতকে। সারা ভারতবাসী আনন্দের জোয়ারে ভেসে গিয়েছেন।

আরও পড়ুন-দিল্লিতে অলিম্পিকে পদকজয়ীদের রাজকীয় সম্বর্ধনা দিলো কেন্দ্রীয় সরকার।

গতকাল দিল্লিতে অলিম্পিক পদকজয়ী দের রাজকীয় সংবর্ধনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার । গতকাল দেশে প্রত্যাবর্তন করেছেন অলিম্পিকে পদকজয়ীরা।দিল্লি বিমানবন্দরের বাইরে নীরজ চোপড়াকে একবার দেখার জন্য বহু মানুষ একত্রিত হয়েছিলেন। গতকাল সন্ধ্যায় দিল্লির একটি ফাইভ স্টার হোটেলে রাজকীয় ভাবে অলিম্পিকে পদক জয়ী দের সম্বর্ধনা জানালো কেন্দ্রীয় সরকার।

মীরাবাঈ, নীরজ, বজরং, রবি, লাভলিনাদের সম্বর্ধনা জানিয়েছেন প্রাক্তন ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজু, কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। অলিম্পিকে পদক জয়ী দের পুরস্কৃত করা হয়।এছাড়াও ভারতীয় মহিলা এবং পুরুষ হকি দলের খেলোয়াড়দের সম্মানিত করা হয় এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে।কিন্তু এই অলিম্পিকে পদক জয়ে সরকারি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের মঞ্চের সিংহভাগ জুড়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মুখ থাকায় যথেষ্ট কটাক্ষের সূত্রপাত হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ব্যাপক ট্রোলিং শুরু হয়েছে নেটমাধ্যম জুড়ে।

আরও পড়ুন-“যদি নাম হয় নীরজ, তাহলে পেয়ে যাবেন ৫০১ টাকার ফ্রী পেট্রোল”- নীরজের পদক জয়ের আবেগে দারুন অফার দিলো পেট্রোল পাম্প

অনেকেই প্রশ্ন করেছেন যে, “মেডেল জিতেছেন আসলে কে? প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী?”প্রধানমন্ত্রী পদকজয়ী অ্যাথলিটদের সাথে ভারত থেকে টোকিওতে ভিডিও কল করে কথা বলেছিলেন, এছাড়াও একটুর জন্য ব্রোঞ্জ জিততে না পারা মহিলা হকি দলকে তিনি সান্ত্বনা দিয়েছিলেন। এই ছবিগুলো যথেষ্ট প্রচার করেছিলো বিজেপি। এই বিষয়ে এবার বিরোধীরা তোপ দেগেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে।

আরও পড়ুন-আগামী ২০২৮ অলিম্পিকে কী ক্রিকেটের উপস্থিতি থাকতে চলেছে? সৌরভের উদ্যোগে তৎপর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড

এই বিষয়ে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বলেছেন, “গত বাজেটেও ক্রীড়া খাতে কেন্দ্রীয় সরকার ২৩০ কোটি টাকা ছাঁটাই করে দিয়েছে। আর এই দিকে অলিম্পিকে অ্যাথলিটদের ভালো ফল কে নিজেদের সাফল্য বলে দাবী করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে বিজেপি সরকার। শুধু এই শুকনো অভিনন্দন না জানিয়ে খেলোয়াড়দের যে বকেয়া পুরস্কারের টাকা আছে সেগুলো মিটিয়ে দিন। যে পুরস্কারের টাকা ঘোষণা করা হয়েছে সেটা অবিলম্বে মিটিয়ে দেওয়া হোক।”

তাই এবার অলিম্পিকে পদক জয়ীদের রাজকীয় সংবর্ধনা দেওয়া হলেও কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে একটা প্রশ্নচিহ্ন তুলে দিলো বিরোধী দলগুলি।

Related Articles

Back to top button