নিউজটেক নিউজপলিটিক্সরাজ্য

অধীর চৌধুরীর আবেদনে সাড়া দিলেন প্রধানমন্ত্রী। ডিআরডিও মুর্শিদাবাদ এবং কল্যাণীতে বানাতে চলেছে অত্যাধুনিক কোভিড হসপিটাল।

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী কে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কথা দিয়েছিলেন যে মুর্শিদাবাদে অবশ্যই গড়ে উঠবে করোনা হাসপাতাল। সেইমতো প্রধানমন্ত্রী তার প্রতিশ্রুতি পালন করেছেন। খুব শীঘ্রই বহরমপুর এবং কল্যাণীতে গড়ে উঠতে চলেছে ৫০০ বেড বিশিষ্ট করোনা হাসপাতাল। এই কাজের বরাত পেয়েছে ডিআরডিও।

জানা গিয়েছে মুর্শিদাবাদের একটি হাসপাতালে অভিযোগ উঠেছিলো যে মানুষ নিজেই নিজের সোয়াব নমুনা সংগ্রহ করছেন। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছিল। এই ঘটনার পরেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখে অনুরোধ জানিয়েছিলেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেছিলেন যে অবিলম্বে ডিআরডিওকে কাজের বরাত দিয়ে মুর্শিদাবাদের বুকে একটি কোভিড হাসপাতাল চালু করা হোক।

আরও পড়ুন-মুকুল রায়ের কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা প্রত্যাহার করল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

সিবিআই এর ডিরেক্টর নির্বাচনের দিন প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে উপস্থিত হয়েছিলেন অধীর চৌধুরী। সেখানেও তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে কোভিড হাসপাতাল গড়ে তোলার দাবী জানিয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রীও তাকে আশ্বাস দিয়েছিলেন যে খুব শীঘ্রই মুর্শিদাবাদে কোভিড হাসপাতাল চালু হবে।অবশেষে প্রধানমন্ত্রী তাঁর দেওয়া প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ডিআরডিওর গ্রুপ ক্যাপ্টেন এর নেতৃত্বে কোভিড হাসপাতাল গঠন করানোর কাজ শুরু করে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন-রাষ্ট্রপতির সাথে দিল্লিতে সাক্ষাৎ করতে চলেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়

তবে বহরমপুরের প্রশাসন জানিয়েছে যে ১০০০ বেডের কোভিড হাসপাতাল গড়ে তোলার মতো যথেষ্ট জায়গা নেই। তাই ডিআরডিও সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে ২৫০ টি বেডের কোভিড হাসপাতাল গড়ে তোলা হবে বহরমপুরে এবং বাকি ২৫০ টি বেডের কোভিড হাসপাতাল গড়ে তোলা হবে কল্যাণীর বুকে। জানা গিয়েছে পিএম কেয়ার ফান্ড থেকে মোট ৪১.৬২ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে এই দুটি কোভিড হাসপাতাল তৈরির জন্য।

Related Articles

Back to top button