“সিপিএমের শাসনকালে 100 শতাংশ দুর্নীতি দেখেছে বাংলার মানুষ, আমাদের জমানায় 7-8 শতাংশ হয়েছে “- বললেন মমতা

করোনা মানুষকে দেখিয়েছে বাস্তবের এক অন্ধকার চিত্র। এক লহমায় মানুষের দৈনন্দিন চেনা ছবিটা পাল্টে দিয়েছে এই মারণ রোগ। অনেকেই আজ রুজি রোজগারের সংস্থান হারিয়ে দূর্দশার চরম সীমায় নেমে গিয়েছেন। করোনার গ্রাসের ব-লি হয়েছেন অসংখ্য মানুষ। তাঁদের পরিবার উজাড় হয়ে গিয়েছে। অনেকেই তাঁদের প্রিয়জনকে হারিয়ে শো-কে স্তব্ধ হয়ে গেছেন।

সংসার ভে-ঙে পড়েছে অনেকের‌ই। করোনার এই আবহে লকডাউনের ফাঁদে পড়ে অনেক মানুষের আজ দুবেলা দুমুঠো খাবার‌ও জুটছে না। আজ মানুষ শুধুমাত্র একটু কোনোরকমে বাঁচতে চাইছে। চারদিকে দেখা দিয়েছে ধ্বং-সে-র একটি করাল‌ ভ-য়-ঙ্ক-র রূপ। মৃ-ত্যুমিছিল চলছে তার সাথে পাল্লা দিয়ে। এর‌ই মধ্যে কলকাতার হাজরায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতা পুলিশের একটি অনুষ্ঠানে একটি ঘোষণা করেছেন।

আরও পড়ুন – জিও থেকে গ্রাহক টানতে কম দামে দারুন প্ল্যান লঞ্চ করলো এয়ারটেল, এবার পাবেন আনলিমিটেড কল সহ ডেটা

তিনি সকলকে করোনা নিয়ে অযথা আতঙ্কিত হতে বারণ করেছেন এবং আ-ত-ঙ্ক ছড়াতে বারণ করেছেন। সকলকে তিনি লকডাউনের নিয়ম মেনে চলতে বলেছেন। তার পাশাপাশি সকলকে শারীরিক দূরত্ববিধি মানতে বলেছেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন যে, করোনায় আ-ক্রা-ন্ত হলে ১০ লক্ষ টাকার জীবনবীমা দেওয়া হবে। এই বীমা দেওয়া হবে স্বাস্থ্য , জরুরি পরিষেবা এবং প্রশাসনের সাথে যুক্ত ব্যাক্তিদের।

আরও পড়ুন – ফের নিম্মচাপের ধা’ক্কা বাংলায়, হুগলি-নদীয়া সহ পাঁচ জেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা জানালো আবহাওয়া দপ্তর

এছাড়াও আমফানের ক্ষ-তি-পূ-র-ণে দূর্নীতি ধরা পড়লেও কড়া ব্যবস্থা নেবেন বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আমফানের ত্রাণ বিলিকে কেন্দ্র করে শাসকদলের অভ্যন্তরে হ‌ওয়া দূর্নীতি প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন যে, “বিক্ষিপ্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি করছে কিছু রাজনৈতিক দল। মাত্র ৭% থেকে ৮% মানুষ এই কান্ড করেছে।

আরও পড়ুন – এবছর কি হবে স্নাতক-স্নাতকোত্তরের পরীক্ষা? স্পষ্ট না জানালেও ইঙ্গিত দিলেন শিক্ষামন্ত্রী

তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে দল। সিপিএম আমলে ১০০% ই চুরি হত। আমরা সেটা ৯০% কমিয়ে দিয়েছি। আমরা মানুষের অন্ন মেরে দিইনা। আমি আমার দলীয় নেতাকর্মীদের ছেড়ে দিইনা। সিপিএম বিগত ৩৪ বছর ধরে দূর্নীতি চালিয়ে গিয়েছে।

সেই দূ-র্নী-তি-র সন্তানরা এখনও কিছু অফিসে নিচুতলায় রয়ে সেই কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। সবকটা দূ-র্নী-তিবা-জকে ধরে শাস্তি দেওয়া হবে। আস্তে আস্তে আমরা রাজ্যকে ১০০% দূ-র্নী-তিমুক্ত করবো।”

এখানে আপনার মতামত জানান