“আগামী লোকসভা ভোটেও খেলা হবে।”- আজ তৃণমূল ভবনে পৌঁছে বললেন প্রত্যয়ী সায়নী ঘোষ।

“আগামী লোকসভা ভোটেও খেলা হবে।”- আজ তৃণমূল ভবনে পৌঁছে বললেন প্রত্যয়ী সায়নী ঘোষ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোটে গ্ল্যামার জগৎ থেকে বহু পরিচিত মুখ এসে ভিড় জমিয়েছেন বিজেপি এবং তৃণমূলে। টলিউড তারকাদের রাজনৈতিক জগতে পদার্পনে এবারের একুশের ভোট হয়ে উঠেছিলো আরো রঙিন। এরকমই একুশের ভোটে অন্যতম তারকা প্রার্থী হিসাবে তৃণমূলের হয়ে আসানসোল দক্ষিণের মাটিতে লড়াই করেছেন তৃণমূলের অন্যতম তারকা প্রার্থী সায়নী ঘোষ। প্রথম পর্ব থেকেই সায়নী ঘোষ আসানসোলের মাটিতে ছুটে বেড়িয়েছেন।

প্রতিটি মানুষের সমস্যার কথা শুনেছেন। প্রথম পর্বের প্রচার চলাকালীন তিনি বিজেপি কর্মীদের তীব্র প্রতিরোধের মুখে পড়েও দৃঢ়চেতা সায়নী কখনৈই তাঁর মনোবল হারিয়ে ফেলেননি। আসানসোলের মাটিতে যথেষ্ট জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তা সত্ত্বেও আসানসোল দক্ষিণে তিনি পরাজিত হয়েছেন বিজেপি প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পলের কাছে।

আরও পড়ুন-যুব তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি হতে চলেছেন সায়নী ঘোষ

তবে পরাজিত হয়েও তিনি আসানসোল দক্ষিণের মানুষের উন্নয়নকল্পে সচেষ্ট রয়েছেন। অনেকদিন থেকেই সায়নীকে তৃণমূলের কোনো একটা গুরুত্বপূর্ণ পদে বসানোর জোরালো দাবী উপস্থাপিত হয়েছিলো।এবার আপামর তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের দাবী অনুযায়ী সায়নীকে গুরুত্বপূর্ণ পদ দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। যুব তৃণমূলের রাজ্য সভাপদি পদে আসীন হয়েছেন সায়নী ঘোষ।

আরও পড়ুন-যুব তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক হলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

আজ নতুন দ্বায়িত্বভার বুঝে নিতে তৃণমূল ভবনে এসেছিলেন সায়নী ঘোষ।তৃণমূল ভবনে এসে তিনি বলেছেন যে, “আমি নিয়মিত তৃণমূল ভবনে আসবো। আমাকে যে সাংগঠনিক দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে আমি তা পালন করব। মাননীয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সহ দলের অন্যান্য নেতারা রয়েছেন তাদের পরামর্শ অনুযায়ী আমি কাজ করে যাব।

আরও পড়ুন-“ফেসবুকে যখন তখন যা খুশি বলা যাবে না।”- ফেসবুক লাইভ প্রসঙ্গে মদন মিত্রকে ভর্ৎসনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

আমি জেলার সমস্ত নেতাদের সাথে বৈঠকে বসবো। আগামী লোকসভা ভোটেও ভালোই খেলা হবে। “