নিউজপলিটিক্সরাজ্য

জামাইষষ্ঠীর দিনেই নতুন পরিচিতি শোভন-বৈশাখীর

নিজস্ব প্রতিবেদন: বর্তমানে বিতর্কের আরেক নাম শোভন বৈশাখী। এই যুগলে বর্তমানে বাংলার জনমানসে ব্যাপক বিতর্কের সূত্রপাত ঘটিয়েছেন। স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর পুত্র কন্যার সাথে সমস্ত সম্পর্ক ত্যাগ করে বর্তমানে গোলপার্কের ফ্ল্যাটে বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় কে নিয়ে থাকেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। বেহালা পূর্বের তৃণমূল বিধায়ক রত্না চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন যে তিনি তাঁর স্বামী শোভন চট্টোপাধ্যায় কে কখনোই ডিভোর্স দেবেন না।

এদিকে ডিভোর্সের মামলা দায়ের করেছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। গত ১৭ ই মে সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায় সহ তৃণমূলের তিন হেভিওয়েট নেতা। সিবিআই গ্রেফতার করার পরেই স্বামী শোভনের পাশে দাঁড়াতে ছুটে গিয়েছিলেন রত্না চট্টোপাধ্যায়, এছাড়া শোভন অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হ‌ওয়ার সময়েও শোভনের পাশে দাঁড়াতে চেয়েছিলেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। সকলেই রত্নার স্বামীর প্রতি কর্তব্যবোধের যথেষ্ট প্রশংসা করেছিলেন।

আরও পড়ুন-সমগ্র দেশে যুব তৃণমূল কে সম্প্রসারিত করার পরিকল্পনা নিলেন সায়নী ঘোষ। দিলেন প্রারম্ভিক দাওয়াই।

কিন্তু মন গলেনি শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। বারবার তিনি দূরে সরিয়ে দিয়েছেন স্ত্রী এবং পুত্র-কন্যাকে। বর্তমানে তিনি তার সুখ দুঃখের সাথী বলতে একমাত্র চেনেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় কে। বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় এর নামে তিনি তার সমস্ত সম্পত্তি উইল করে দিয়েছেন।

বাংলার আপামর মানুষজন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের এই সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা করেছেন। এবার বৈশাখীর আরেকটি কান্ডকে ঘিরে বাংলার রাজনীতিতে জল্পনার সৃষ্টি হয়েছে।নিজের ফেসবুক প্রোফাইল পিকচার রাতারাতি পাল্টে ফেললেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। আর নাম‌ও দিলেন ‘বৈশাখী শোভন ব্যানার্জী।’

আরও পড়ুন-শোভন-বৈশাখীকে আক্রমণ করলেন কুণাল ঘোষ। কি বললেন তিনি?

এর সাথে ক্যাপশান জুড়লেন, ‘The journey from Me to We begins…’ বৈশাখী প্রোফাইল পিকচারে দিয়েছেন একে অপরের দিকে হাস্যমুখে চেয়ে থাকা দুজনের ছবি। এই প্রসঙ্গে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, তিনি শোভনের অনুমতি নিয়েই এটা করেছেন। বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়ের কোনো আলাদা ফেসবুক প্রোফাইল হবে না।

কিন্তু এই বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়ায় উপস্থাপিত হতেই নেটিজেনরা ব্যাপক কটাক্ষ করেছেন শোভন-বৈশাখীকে। চারিদিকে নিন্দার ঝড় বয়ে গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button