নিম্নচাপের হাত ধরেই বাংলার মাটিতে প্রবেশ করতে চলেছে বর্ষা।

নিম্নচাপের হাত ধরেই বাংলার মাটিতে প্রবেশ করতে চলেছে বর্ষা।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাংলার মাটিতে খুব শীঘ্রই প্রবেশ করতে চলেছে বর্ষা। এমনটাই পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। আজ শনিবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে চলেছে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। রাতের দিকে বেশ কিছু জায়গায় বজ্রবিদ্যুৎসহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

আজ জুনের ৫ তারিখ। এখনো বাংলার মাটিতে দেখা নেই বৃষ্টির । তীব্র দাবদাহে মানুষের প্রাণ ওষ্ঠাগত। এক ফোঁটা বৃষ্টির জন্য হা পিত্যেশ করে বসে আছেন বঙ্গবাসী। আবহাওয়া দপ্তর ঘোষণা করেছে যে, গত ৩ রা জুন কেরলে বর্ষার আগমন ঘটে গিয়েছে। বাংলার মাটিতে এখনো দেখা মেলেনি বৃষ্টির। আবহাওয়া দপ্তরের সূচনা অনুযায়ী গত কয়েকদিন আগেই বাংলার মাটিতে প্রাক বর্ষার বৃষ্টির দেখা মিলেছিলো।

আরও পড়ুন-“অবসরপ্রাপ্ত আমলাদের পুনর্নিয়োগের বাধ্যতামূলক হবে ভিজিল্যান্সের ছাড়পত্র।”- জারি হল নির্দেশিকা।

তবে দাবদাহ কমেনি।আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে নিম্নচাপের মাধ্যমে আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই বাংলায় প্রবেশ করতে চলেছে বর্ষা। উত্তর বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ ঘনীভূত হচ্ছে যার ফলে প্রচুর পরিমাণে মৌসুমী বায়ু এবং জলীয় বাষ্প রাজ্যে প্রবেশ করতে চলেছে। আগামী ১০ ই জুন রাত থেকেই গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে বর্ষা প্রবেশ করবে।

আরও পড়ুন-“অবসরপ্রাপ্ত আমলাদের পুনর্নিয়োগের বাধ্যতামূলক হবে ভিজিল্যান্সের ছাড়পত্র।”- জারি হল নির্দেশিকা।

অর্থাৎ আগামী ১১ ই জুন বাংলার মাটিতে নামবে স্বস্তির বৃষ্টি। সূচনা হবে বর্ষার। আগামী ১১ ই জুন থেকেই একটানা ৪৮ ঘন্টা জুড়ে বাংলার মাটিতে বৃষ্টির দেখা মিলবে। তারপরেই নিম্নচাপটি ধাবিত হবে উত্তরবঙ্গের উদ্দেশ্যে। বাংলায় বৃষ্টি শুরু হওয়ার সাথে সাথে ওড়িশা, সিকিম, ঝাড়খন্ডেও বর্ষার সূচনা ঘটবে।