নিউজটেক নিউজদেশ

দুর্নীতিবাজদের সমূলে উৎপাটিত করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে নতুন পদক্ষেপ নিতে চলেছে মোদী সরকার।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সম্প্রতি দেশবাসীর সুরক্ষায় এবং দুর্নীতিবাজদের সমূলে উৎখাত করার জন্য এক নতুন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে মোদী সরকার।কয়েকদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী ই রুপির সূচনা করেছেন। আগেই এই বিষয়ে কেন্দ্রকে পরামর্শ প্রদান করেছিলো রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। এরপর এনপিসিআই কে এই সংক্রান্ত পরিকাঠামো গঠন করার দ্বায়িত্বভার অর্পণ করেছিলো কেন্দ্রীয় সরকার। এনপিসিআই তার দ্বায়িত্ব যথেষ্ট গুরুত্ব সহকারে পালন করেছে।

জানা গিয়েছে এই পদ্ধতির ফলে সরকার বা যেকোনো কর্পোরেশন কিউআর কোড অথবা এসএমএস কোড এর মাধ্যমে যেকোন কাউকে আর্থিক ভাউচার প্রেরণ করতে পারবে। পাশাপাশি যে জিনিস কেনার জন্য কিউআর কোড পাঠানো হবে সেটি দোকান থেকে ক্রয় করতে পারবেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি। কেন্দ্রীয় সরকার যদি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে প্রত্যেককে বিনামূল্যে ১০ টি করে স্যানিটাইজার বিতরণ করা হবে তার জন্য সরকার দোকানগুলিতে এই স্যানিটাইজার পাঠিয়ে দিলো, কিন্তু তারপরেই এরকম ঘটনা হতে পারে যে এই বিনামূল্যে স্যানিটাইজার গুলিকে নিয়ে দূর্নীতি শুরু হয়ে গেলো।

আরও পড়ুন-যে আইন প্রণয়ন করার জন্য সমালোচিত হতে হয়েছিল প্রণব মুখার্জিকে সেই আইনকে সমাপ্ত করতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার

কিন্তু এছাড়াও যদি নাগরিকদের অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানো হয়, তাহলে অনেকে এই টাকা খরচ করবেন না এমন ঘটনাও ঘটতে পারে। এই সময়েই ই রুপি ব্যবহার্য বলে বিবেচিত হবে।জানা গিয়েছে এই ই রুপির দ্বারা কেন্দ্রীয় সরকার গ্রাহকদের মোবাইলে ১০ টি স্যানিটাইজারের জন্য একটি ভাউচার প্রেরণ করবে। এবার সেই ভাউচার নিকটবর্তী দোকানে গিয়ে দেখিয়ে ১০ টি স্যানিটাইজার ক্রয় করতে পারবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

আরও পড়ুন-“শহীদ’দের নামেই হবে সরকারি স্কুলের নামকরণ”- বিরাট সিদ্ধান্ত নিল জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসন

অর্থাৎ এবার যেটা ক্রয় করার জন্য ভাউচার প্রেরণ করা হবে, শুধুমাত্র সেই নির্দিষ্ট পণ্যটাই নাগরিকরা ক্রয় করতে পারবেন। এই পদ্ধতি অবলম্বন করলে সারাদেশ থেকে দুর্নীতি দূর হবে বলে আশাবাদী কেন্দ্রীয় সরকার।

Related Articles

Back to top button