“ফের পরিযায়ীরা হাঁটতে শুরু করেছে। কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য কে দোষারোপ করা ছাড়া ওদের সাহায্য করবেন কি?”- করোনা আবহে পরিযায়ীদের স্বপক্ষে মুখ খুললেন রাহুল গান্ধী।

“ফের পরিযায়ীরা হাঁটতে শুরু করেছে। কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য কে দোষারোপ করা ছাড়া ওদের সাহায্য করবেন কি?”- করোনা আবহে পরিযায়ীদের স্বপক্ষে মুখ খুললেন রাহুল গান্ধী।

নিজস্ব প্রতিবেদন: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় প্রবল সঙ্কটে ভারতবাসী। ইতিমধ্যে ভারতের মাটিতে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৫৩ লক্ষ ১৪ হাজার ৭১৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ১ লক্ষ ৮০ হাজার ৫৫০ জনের। সুস্থ্য হয়ে উঠেছেন ১ কোটি ৩১ লক্ষ ৩ হাজার ২২০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৫৯ হাজার ১৭০ জন। মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৭৬১ জন আক্রান্তের। সারা ভারতে প্রবল ভাবে সন্ত্রাস চালাচ্ছে এই ভাইরাস।

ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র, দিল্লিতে সাময়িক লকডাউন শুরু হয়ে গিয়েছে। আবার বাড়ির পথে সহায় সম্বল নিয়ে পা বাড়িয়েছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা। প্রথম পর্যায়ে বাস্তবের কঠিন কুঠারাঘাতে লকডাউনে বাড়ি ফিরতে চেয়ে একরত্তি শিশুসহ অনেকেই মৃত্যুমুখে পতিত হয়েছিলো। দ্বিতীয়বার যেন এই দৃশ্যের পুনরাবৃত্তি না হয় তার জন্য প্রার্থনা করছে আপামর দেশবাসী।

আরও পড়ুন-শিশুর জীবন বাঁচিয়ে সংবর্ধিত রেলের পয়েন্টসম্যান ময়ূর শেলকে।

এই আবহের মধ্যেই কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী পরিযায়ী শ্রমিকদের কল্যাণার্থে একটি আর্জি জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে।টুইটারে রাহুল গান্ধী লিখেছেন, “আবার রাস্তায় নেমে এসেছে পরিযায়ী শ্রমিক রা। এই কঠিন অবস্থায় কেন্দ্রীয় সরকারের কর্তব্য পরিযায়ী শ্রমিকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা দেওয়া।

কিন্তু যে সরকার করোনা সংক্রমনের জন্য দেশের জনতা কে দোষারোপ করে, সেই সরকার কি এই জনকল্যাণমূলক পদক্ষেপ নেবে?”বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, “তৃণমূল সুপ্রিমো নিজেই কোভিডের সময় সমর্থকদের নিয়ে রাস্তায় গোল টেনে করোনা ছড়িয়েছিলেন। তাঁর ২০ হাজার অনুগামীরা জমায়েত করে করোনা ছড়িয়েছিলো।”