ফের নিম্মচাপের ধাক্কা বাংলায়, আগামী কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই পাঁচ জেলায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিলো আবহাওয়া দপ্তর

শৌভিক বাগ:ভারতে বর্ষার আগমন ঘটেছে ১ লা জুন, এবং বাংলাতেও সহ অন্যান্য রাজ্যেও বর্ষার আগমন ঘটে গিয়েছে। দক্ষিণবঙ্গের বুকে সেরকম বৃষ্টির দেখা না মিললেও উত্তরবঙ্গের বুকে শুরু হয়েছে‌ প্রবল বৃষ্টিপাত। উত্তরবঙ্গের বহু জায়গাতেই এর জন্য সমস্যার উদ্রেক হয়েছে। নদীগুলির জল বিপজ্জনক হারে বাড়ছে।

আরও পড়ুন- আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত স্বজনপোষণের টাকার সমস্তটাই ফেরত দিলো শাসকদল, স্পষ্ট হলো দুর্নীতি!

কিন্তু এবারে বর্ষার প্রারম্ভেই গঙ্গার উপকূলে দেখা দিয়েছে বিরাট ভাঙ্গন। এর ফলে আশঙ্কায় দিন কাটাচ্ছেন বহু মানুষ। জানা গিয়েছে বাংলার বুকে দুই দিনে প্রায় ৪ বিঘা জমি গঙ্গার গ্রাসে চলে গিয়েছে। মঙ্গলবার রাত থেকেই শুরু হয়েছে এই ভাঙ্গন যা শুক্রবার রাতে তীব্র আকার ধারণ করে। গঙ্গায় বর্ষার শুরুতেই জলস্ফীতি ঘটেছে, তার দরুন এই ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। নদী তীরবর্তী এলাকার বাসিন্দারা তাঁদের সহায় সম্বলটুকু নিয়ে ভয়ে ঘর ছাড়তে শুরু করেছেন। এই ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে মালদার কালিয়াচকে।

আরও পড়ুন- ধ’র্ষ’ককে জেল থেকে বাঁচাতে 33 লক্ষ টাকার ঘু’ষ, গ্রে’ফতারির মুখে মহিলা পুলিশ অফিসার শ্বেতা জাদেজা!

এবার জানা গিয়েছে যে দক্ষিণবঙ্গের বুকেও ঘোরতর বৃষ্টি নামতে চলেছে আগামী কয়েকঘন্টার মধ্যেই। বঙ্গোপসাগরের ঘনীভূত নিম্নচাপের ফলে নাকি প্রচুর পরিমাণে জলীয় বাষ্পের আগমন ঘটেছে বাংলায়। এর ফলেই দক্ষিণবঙ্গের বুকে বৃষ্টির ঘনঘটা তৈরি হয়েছে। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে যে মৌসুমী বায়ু সক্রিয় থাকায় আগামী ৪৮ ঘন্টা বৃষ্টির দেখা মিলবে দক্ষিণবঙ্গে। কলকাতার বুকে আগামী ২ দিন বৃষ্টি হবে বলে জানা গিয়েছে। এছাড়াও দক্ষিণবঙ্গের হাওড়া, হুগলি, দুই ২৪ পরগণা, মেদিনীপুরে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।

এখানে আপনার মতামত জানান