নিউজপলিটিক্স

মে দিবসের কর্মসূচিতে বদল করলো বামেরা। জনগণের পরিষেবার দিকে লক্ষ্য দিয়েছে বাম সংগঠন।

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজ্যে আজ অষ্টম দফার অর্থাৎ শেষ দফার ভোটগ্রহণ চলছে। এই ভোটগ্রহণ কে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই দফায় দফায় হিংসা হানাহানি ঘটনা ঘটেছে। এমনিতেই সারা ভারত করোনার আঘাতে মুহ্যমান। দিকে দিকে শুধু মৃত্যুর আতঙ্ক। তার মধ্যেও বাংলায় একুশের ভোট ঘিরে অব্যাহত রাজনৈতিক হিংসা হানাহানি।

যেখানে বর্তমান পরিস্থিতিতে মানুষের সকলের উচিত একে অপরের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করা এই মহামারির বিরুদ্ধে , সেখানে রাজনৈতিক আবহে একে অপরের সাথে হিংসায় জড়িয়ে পড়ছে মানুষজন।আগামী শনিবার মে দিবস। তার পরের দিন ২ রা মে হতে চলেছে ভোটের ফলপ্রকাশ। দলের প্রতিষ্ঠাতার সময় থেকেই ১ লা মে দিনটিকে শ্রমিক দিবস হিসাবে পালন করে সিপিএম।

আরও পড়ুন-শীতলকুচিতে আইসি কে আঙুল উঁচিয়ে হুমকি দিলো তৃণমূল প্রার্থী

কিন্তু এবারে এই দিনটিকে সমস্ত অনুষ্ঠান সরিয়ে রেখে করোনা সংক্রমনের এই ভয়াবহ পরিস্থিতির জন্য মানুষের পরিষেবায় লিপ্ত হতে চান রাজ্য সিপিএম নেতা নেত্রীরা।১ লা মে শ্রমিক দিবসের দিন সিপিএম সংযুক্ত মোর্চা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে যে ঐদিন তারা যৌন স্বাস্থ্য কর্মসূচী গ্রহণ করে রাস্তায় নামবে। ‌ বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসু জানিয়েছেন,”আগামী ১ লা মে সকাল ১০ টা থেকে বেলা ১১ টা পর্যন্ত জেলায় জেলায় করোনা সতর্কতা কর্মসূচি পালন করবে সংযুক্ত মোর্চা।

জেলায় জেলায় একটি হেল্পলাইন নাম্বার চালু করার উদ্যোগ গৃহীত হবে।”সিপিএমের অন্যতম নেতা মোহাম্মদ সেলিম বলেছেন যে, “এই সংকটজনক পরিস্থিতিতে শ্রমিকদের কাঁধে বিরাট দায়িত্ব রয়েছে। বর্তমানে অক্সিজেনের বিস্তর অভাব দেখা দিয়েছে। ‌ তাই আমরা অনুরোধ জানাচ্ছি যে সমস্ত শ্রমিকরা ঐদিন তিনটি শিফটে কাজ করে অতিরিক্ত অক্সিজেন উৎপাদন করুন যাতে অসহায় রোগীরা অক্সিজেন পান। তবেই আমাদের শ্রমিক দিবস সফল হবে।”

Related Articles

Back to top button