নন্দীগ্রাম মামলার রায় সুরক্ষিত রাখলো কলকাতা হাইকোর্ট

নন্দীগ্রাম মামলার রায় সুরক্ষিত রাখলো কলকাতা হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোটে যথেষ্ট লড়াই হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীর মধ্যে। একুশের ভোটে সকলের পাখির চোখ ছিল নন্দীগ্রাম। এই নন্দীগ্রামের মাটিতে মুখ্যমন্ত্রী কে ১ হাজার ৯৫৬ টি ভোটে হারিয়ে দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী এই হার দূর্নীতিগ্রস্ত বলে প্রথম থেকেই দাবী করে এসেছেন।

ভোটের সময় থেকেই নন্দীগ্রামে যথেষ্ট উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে। শুভেন্দু অধিকারী নন্দীগ্রামের মাটিতে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিলেন যে তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে অনায়াসে হারিয়ে দেবেন। ফল ঘোষণার ৪৫ দিন পরে নন্দীগ্রামের ভোটের ফলাফলকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টে আপিল করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।তিনি ইলেকশন পিটিশন দায়ের করেছেন।

আরও পড়ুন-মুকুল প্রসঙ্গে দ্বিমত বিজেপির অন্দরে। শুভেন্দু দিলীপের গলায় ভিন্ন সুর।

গণনায় কারচুপির অভিযোগের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি অভিযোগ এনেছেন মুখ্যমন্ত্রী।আজ এই মামলার শুনানি হয়েছে হাইকোর্টের বিচারপতি কৌশিক চন্দ্রের এজলাসে। আগের সপ্তাহে এই মামলার শুনানি থাকলেও পরবর্তী সময়ে স্থগিত হয়ে আজ এই মামলার রায়দান ছিলো। বিচারপতি কৌশিক চন্দ্রের এজলাস থেকে এই মামলা সরিয়ে নেওয়ার জন্য হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি কে চিঠি লিখেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। ‌

আরও পড়ুন-এবার রাহুল গান্ধীকে কটাক্ষ করলেন শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে। প্রকাশ্যে এলো শিবসেনা-বিজেপি দ্বিমত।

মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেছিলেন যে বিজেপির সঙ্গে বিচারপতি কৌশিক চন্দ্রের নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে, যার দরুণ নন্দীগ্রাম মামলার বিচারপ্রক্রিয়া প্রভাবিত হতে পারে। কিন্তু প্রধান বিচারপতি তাঁর এই আর্জি খারিজ করে দেন। আজ সকাল ১১ টায় এই মামলার শুনানি ধার্য করা হয়েছিলো। কৌশিক চন্দ্রের এজলাসে এই মামলার শুনানি শুরু হয়।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভার্চুয়াল মাধ্যমে কোর্টে হাজির হয়েছিলেন। এই মামলায় দুই পক্ষের সমস্ত অভিযোগ, তথ্য শোনার পর আদালত নন্দীগ্রাম মামলার রায় সুরক্ষিত রেখেছে বলে জানা গিয়েছে।