উচ্চ মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ হতেই স্কুলে তুলকালাম করল অভিভাবকরা।

উচ্চ মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ হতেই স্কুলে তুলকালাম করল অভিভাবকরা।

নিজস্ব প্রতিবেদন: মাধ্যমিকের ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে কয়েকদিন আগেই। মাধ্যমিকের ফলাফল প্রকাশিত হওয়ার পর বেশ কিছু স্কুলে দেখা গিয়েছে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের অভিভাবকরা গিয়ে যথেষ্ট গন্ডগোলের সৃষ্টি করেছেন। নম্বর কম দিয়েছে স্কুল এই অভিযোগ তুলে বেশ কিছু স্কুলে যথেষ্ট বিক্ষোভ দেখিয়েছে পড়ুয়ারা এবং তাদের অভিভাবকরা। এবার ঠিক এক‌ই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে উচ্চমাধ্যমিকের ফলাফল বেরোনোর পরেই।

উচ্চমাধ্যমিকে কম নম্বর দেওয়ার অভিযোগে যথেষ্ট বিক্ষোভ দেখানো হয়েছে রামপুরহাট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের পড়ুয়ারা দাবি জানিয়েছে তাদের স্কুল থেকে অনেকটাই কম নম্বর দেওয়া হয়েছে তাদের। ‌ পরীক্ষার্থীদের দাবি তারা যে রকম পরীক্ষা দিয়েছিল তার জন্য একাদশ শ্রেণিতে অনেক বেশি নম্বর দেওয়া উচিত ছিল স্কুলের।গতকাল উচ্চ মাধ্যমিকের রেজাল্ট বেরিয়েছে।

আরও পড়ুন-আগামী ১৬ ই আগস্ট কেন হবে খেলা হবে দিবস ?”- ব্যাখ্যা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রামপুরহাটের ওই স্কুলের ছাত্রীদের রেজাল্ট আশানুরূপ না হওয়ায় আজ স্কুল খুলতেই পড়ুয়া এবং অভিভাবকরা স্কুলে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। ‌ পড়ুয়ারা এবং অভিভাবকরা দাবি করেছেন যে একাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা অনুযায়ী ভালোভাবে নম্বর দেওয়া হয়নি। এইকম নম্বর বোর্ডে পাঠানোর জন্য ওই স্কুলের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের ফল অনেকটাই খারাপ হয়ে গিয়েছে। স্কুলের শিক্ষিকারা খাতা দেখতে অনেকটাই গাফিলতি করেছেন বলে অভিযোগ অভিভাবকদের।

আরও পড়ুন-পোস্ট অফিসে সম্পূর্ণ দুটি নতুন পরিষেবা চালু করল ভারতীয় ডাক বিভাগ

স্কুলের শিক্ষিকা রা এই বিক্ষোভ প্রসঙ্গে স্থানীয় থানাতে জানাতেই রামপুরহাট থানার পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার জন্য স্কুলে এসে হাজির হয় এবং অভিভাবকদের বোঝায়। ‌ শিক্ষিকারা জানিয়েছেন যে “ইচ্ছা করে স্কুল থেকে কখনোই পড়ুয়াদের কম নম্বর দেওয়া হয় না। ‌ শিক্ষক শিক্ষিকারা সবসময় পড়ুয়াদের মঙ্গল কামনা করে থাকেন। তারা যেমন পরীক্ষা দিয়েছে সেই নম্বর বোর্ডে পাঠানো হয়েছে।”

কিন্তু শিক্ষিকাদের এই মন্তব্যে মন গলেনি অভিভাবকদের। তারা এখনও অনবরত বিক্ষোভ এগিয়ে চলেছে।