‘সাদা শাড়ির দিন শেষ,সাদা দাড়ির দিন এসেছে’;কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের!

‘সাদা শাড়ির দিন শেষ,সাদা দাড়ির দিন এসেছে’;কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের!

নিজস্ব প্রতিবেদন:পঞ্চম দফার ভোট শেষে বর্তমানে সারা রাজ্য জুড়ে ষষ্ঠ দফার ভোটের প্রস্তুতি চলছে।এমতাবস্থায় করোনাভাইরাস এর দ্বিতীয় ঢেউ রাজ্যজুড়ে প্রভাব বিস্তার করেছে ।কিন্তু তাতেও সারা রাজ্য জুড়ে প্রচার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন রাজনৈতিক দলের নেতা মন্ত্রীরা। এই পরিস্থিতিতে আবারো ফের রাজ্যে বিজেপির জয়লাভের আত্মবিশ্বাস নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

রবিবার পূর্ব বর্ধমানের ভাতার আসনে এক জনসভায় অংশগ্রহণ করে রীতিমত শাসক দলকে একাধিক ইস্যুতে আক্রমণ করেন দিলীপ বাবু।তিনি বলেন,”সাদা শাড়ির দিন শেষ। সাদা দাড়ির দিন এসেছে। দিদিমনির হাওয়াই চপ্পল আর সাদা শাড়ি আমাদের অনেক বোকা বানিয়েছে। আর সাদা শাড়ি নয়, এ বার সাদা দাড়ি চলবে । সাদা দাড়ি এবার সোনার বাংলা গড়বে”।পাশাপাশি তাকে আরো বলতে শোনা যায়,”দিদি বলেছিল খেলা হবে।

আমরা ভেবেছিলাম কী না কী খেলা হবে! এখন বলছে হুইল চেয়ার ঠ্যালা হবে! দিদি বলেছিলেন, একসঙ্গে ভোট করে নাও। শেষে দেখা গেল দিদিই পালিয়ে গিয়েছেন। ম্যাচ শেষ হতে এখনও অনেকটা সময় বাকি। আমরা বলছি ফুলটাইম খেলা হবে। যতক্ষণ না খেলা শেষ হচ্ছে, মাঠ ছাড়ব না”। বর্তমানে নির্বাচনী ফলাফল প্রকাশ পাওয়ার পরই সমস্ত রকমের জল্পনার অবসান ঘটবে।

আরও পড়ুন-‘এমন অপদার্থ প্রধানমন্ত্রী দেখিনি’; করোনা পরিস্থিতির প্রতি নজর রেখে মোদিকে কটাক্ষ মমতার!

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য বর্তমানে ভাইরাসের সংকটজনক পরিস্থিতি দেখে রাজ্যে ইতিমধ্যেই প্রচার কাজ কমিয়ে আনার কথা জানিয়েছেন বামপন্থী সমর্থকরা।অপরদিকে কলকাতাতে সংক্রমনের পরিমাণের উপর নজর রেখে আর কোন সভা করবেন না বলে জানিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও এখনও পর্যন্ত পরবর্তী তিন দফার ভোট নিয়ে চিন্তায় রয়েছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন।

কারণ পঞ্চম দফায় পৌঁছতে পৌঁছতে রাজ্যে দৈনিক করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ৮ হাজার এর উর্দ্ধে পৌঁছে গিয়েছে। রবিবার ভাইরাসের বলি হয়ে মারা গিয়েছেন ৩৪ জন। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের কাছে রীতিমতো চিঠিতে ৫ কোটি ৪০ লক্ষ টিকার ডোজের অনুরোধ জানিয়েছেন মমতা। যদিও তিনি দাবি করেছেন এখনো পর্যন্ত এই প্রসঙ্গে কোনরকম সাহায্য পাওয়া যায়নি কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে।