প্রচারে বেরিয়ে মাস্ক বিলি করলেন বহরমপুরের কংগ্রেস প্রার্থী।

প্রচারে বেরিয়ে মাস্ক বিলি করলেন বহরমপুরের কংগ্রেস প্রার্থী।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সারা দেশের মধ্যে এক পৈশাচিক মৃত্যু যাত্রার সূচনা করেছে করোনাভাইরাস এর দ্বিতীয় পর্যায়ের শক্তিশালী ঢেউ। প্রথম পর্যায়ে অগণিত মানুষের মৃত্যুর মিছিলে দেখেছিল দেশবাসী তথা পৃথিবীবাসী । চোখের জলে প্রিয়জনকে শেষ বিদায় জানিয়ে ছিলেন বহু মানুষ। অনেকেই তার প্রিয়জনকে শেষ দেখা টুকুও দেখতে পাননি। বেওয়ারিশ এর মত অনেকেই শ্মশানে পুড়েছেন, কবরে চিরনিদ্রায় ঘুমিয়ে পড়েছেন ।

প্রথম পর্যায়ের বীভৎসতা কিছুটা হলেও কেটে গিয়েছিল ২০২০ সালের শেষের দিকে। কিন্তু বিগত একমাস ধরে আবার ঘুরে আঘাত করতে শুরু করেছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। হসপিটালে মানুষকে নিয়ে যাওয়ার লোক থাকছে না , আবার অনেকক্ষেত্রেই বহু মানুষ কোনোরকম অ্যাম্বুলেন্স‌ও পাচ্ছেন না। এক কথায় এক ভয়াবহ পরিস্থিতি রাজ্যের বুকে। একুশের ভোট ঘিরে রাজনৈতিক দলের জনসভায় বিপুল পরিমাণ মানুষের ভীড় আরো উসকে দিয়েছে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা।

আরও পড়ুন-“বাংলার অক্সিজেন সাপ্লাই চেন উত্তরপ্রদেশে নিয়ে চলে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।”- বাংলায় অক্সিজেনের সংকট নিয়ে কেন্দ্রকে বিঁধলেন মুখ্যমন্ত্রী।

নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করেছে যে রাজনৈতিক দলগুলি বাংলার মাটিতে কোনো মিটিং মিছিল, রোড শো করতে পারবে না।বাম সংযুক্ত মোর্চা আগেই জানিয়ে দিয়েছিল যে তারা আর কোন বড় জনসভা করবে না, পরিবর্তে তারা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার চালাবে এবং মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার করবে। সেইমতো বহরমপুরের সংযুক্ত মোর্চার কংগ্রেস প্রার্থী মনোজ চক্রবর্তী প্রচারে বেরিয়েছিলেন গতকাল।

করোনার এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে তিনি প্রচারে বেরিয়ে জনসাধারণের মধ্যে বিলি করলেন মাস্ক। বহরমপুরের বাজারে সচেতনতামূলক প্রচার চালিয়েছেন মনোজ বাবু। সাধারণ মানুষের হাতে তিনি মাস্ক, স্যানিটাইজার তুলে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন,”মানুষের এখন দুরূহ অবস্থা। মানুষ মাস্ক কিনবেন, না স্যানিটাইজার কিনবেন ? তাদের তো খেতেও হবে। তাই আমরা যতদিন পারবো মানুষকে স্যানিটাইজার এবং মাস্ক দিয়ে যাবো।”