“সিঙ্গুর নন্দীগ্রাম কাণ্ডে সিপিএমের কি হাল হয়েছিল আপনারা জানেন”- জনসভা থেকে হুঙ্কার অভিষেকের

“সিঙ্গুর নন্দীগ্রাম কাণ্ডে সিপিএমের কি হাল হয়েছিল আপনারা জানেন”- জনসভা থেকে হুঙ্কার অভিষেকের

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোটে রাজ্যের বুকে অব্যাহত রয়েছে হিংসা হানাহানি ঘটনা।কোচবিহারের শীতলকুচি কাণ্ডে উত্তপ্ত বাংলার রাজনৈতিক আবহ। কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের গুলিতে প্রাণ গিয়েছে চারজন তৃণমূল সমর্থকের । জ‌ওয়ানরা দাবি করেছেন যে, তিনশো থেকে চারশো জন জ‌ওয়ানদের ঘিরে ধরে আক্রমণ করতে উদ্যত হয়েছিল, তাই প্রাণ রক্ষার তাগিদে জওয়ানরা গুলি চালিয়েছে।

বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ একটি জনসভায় তিনি বলেছেন,”দুষ্টু ছেলে গুলো কালকে গুলি খেয়েছে কোচবিহারের শীতলকুচিতে। এই দুষ্টু ছেলেরা থাকবে না বাংলায় । যদি কেউ আইন হাতে তুলে নিতে আসে তাকে যোগ্য জবাব দেওয়া হবে। আগামী ১৭ ই ফেব্রুয়ারি আপনারা দলে দলে ভোট দিতে যাবেন, কেউ আপনাদের লাল চোখ দেখাতে পারবে না। সেন্ট্রাল‌ ফোর্স থাকবে। শীতলকুচিতে দেখেছেন কি হয়েছে, জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে।

আরও পড়ুন-শীতলকুচি তে নিহতদের পরিবারের সাথে ভিডিও কলে কথা বললেন মুখ্যমন্ত্রী। দিলেন পাশে থাকার আশ্বাস।

“এদিকে দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তাকে এক হাতে নিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিষেক বলেছেন, ” যাদের মারা হয়েছে তারা নিরস্ত্র ছিল, কেন্দ্রীয় বাহিনী আত্মরক্ষার জন্য পায়ে গুলি করতে পারত, কিন্তু সোজাসুজি বুকে গুলি করেছে। মুখ্যমন্ত্রী আগামী দিনে ক্ষমতায় থাকলে এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করে দোষীদের খুঁজে বের করা হবে।

নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহ কে হাতজোড় করে অনুরোধ করবো যদি আপনাদের মধ্যে ন্যূনতম বিবেকবোধ এবং মনুষ্যত্ব থাকে তাহলে আগামীকাল সাংবাদিক সম্মেলন করে দিলীপ ঘোষকে আপনাদের সংগঠন থেকে বহিষ্কার করে দেখান। না হলে আপনারা প্রমাণ করুন শীতলকুচি ঘটনায় আপনাদের কোন ইন্ধন নেই। আপনাদের মনে আছে তো সিঙ্গুর নন্দীগ্রাম করে সিপিএমের কি হাল হয়েছিল?”