ধর্ণামঞ্চে ছবির মাধ্যমে মনের ভাবনাকে ফুটিয়ে তুললেন মুখ্যমন্ত্রী

ধর্ণামঞ্চে ছবির মাধ্যমে মনের ভাবনাকে ফুটিয়ে তুললেন মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোট ঘিরে থমথমে পরিবেশ বাংলার রাজনৈতিক পটভূমিতে। প্রথম দফার ভোট শান্তিপূর্ণ হওয়ার পর অনেকেই আশ্বস্ত হয়েছিলেন যে বাকি সাতটি দফার ভোট হয়তো শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হতে চলেছে, কিন্তু অচিরেই বাংলার জনসাধারণের ভুল ভেঙে হিংসার বাতাবরণ আরো গাঢ় হয়ে উঠেছে বাকি নির্বাচনী দফা গুলিতে। নন্দীগ্রাম সহ বিভিন্ন প্রান্তে যথেষ্ট হিংসা হানাহানির ঘটনা ঘটেছে।

কোচবিহারের শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপর হামলা করতে গিয়ে তাদের গুলিতে প্রাণ গিয়েছে চারজন তৃণমূল সমর্থকের। এই ঘটনায় সারা রাজ্য জুড়ে প্রবল চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সরাসরি দায় চাপিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে শুরু করে নির্বাচন কমিশন এবং কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপরে। ‌ তিনি অভিযোগ করে বলেছেন যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশে কাজ করছে নির্বাচন কমিশন এবং কেন্দ্রীয় বাহিনী। ‌

আরও পড়ুন –এবার অনুব্রত মন্ডলকে শোকজের নোটিশ কমিশনের

তার এই মন্তব্যকে সম্পূর্ণ নির্বাচনী বিধির বিরোধী বলে ২৪ ঘন্টা মুখ্যমন্ত্রীর জনসভা তথা নির্বাচনী কর্মসূচি বাতিল করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশনের এই সিদ্ধান্তকে অগণতান্ত্রিক আখ্যা দিয়ে গতকাল বেলা ১২ টার পর গান্ধী মূর্তির পাদদেশে ধর্নায় বসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি প্রায় তিনঘন্টা সময় ধরে ধর্ণা দিয়েছেন।

ধর্না মঞ্চে বসে তিনি বিভোর হয়ে গিয়েছেন রং-তুলি এবং ক্যানভাসের মধ্যে । একের পর এক ছবিতে তিনি তার মনের চিন্তা ভাবনার প্রতিফলন উপস্থাপিত করেছেন। এর আগেও তিনি বহুবার ছবি এঁকেছেন। ‌ এর অন্যথা হলোনা ধর্নাস্থলেও। গভীর মনোযোগ সহকারে তিনি এঁকে গিয়েছেন একের পর এক ছবি। প্রতিটি ছবিতেই তাঁর মানসিক চেতনা প্রস্ফূটিত হয়েছে।