নিউজটেক নিউজরাজ্য

আগামী সেপ্টেম্বরে আবার দিল্লি যেতে পারেন মুখ্যন্ত্রী। রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাংলার মাটিতে বিজেপির জয়রথ একা হাতে রুখে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপরই সারা দেশ জুড়ে তাঁর রাজনৈতিক গুরুত্ব অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলার সিংহাসন কুক্ষিগত করতে একুশের ভোটে বারবার দিল্লি থেকে বাংলা যাতায়াত করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সহ বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা নেত্রীরা। কিন্তু বাংলার মানুষ বাংলার মেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপরেই ভরসা রেখেছে। ‌

এদিকে তাবড় তাবড় কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে পর্যুদস্ত করায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সারা দেশজুড়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে অন্যতম মুখ বলে মনে করছে অনেক বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক সংগঠন গুলি।কয়েকদিন আগেই দিল্লিতে পদার্পণ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‌ দিল্লিতে পদার্পণ করে তিনি বিজেপি বিরোধী শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক দিয়েছিলেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাথে সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎ করেছিলেন।

আরও পড়ুন-বিদ্যুৎ আইনের সংশোধনের বিরোধিতা করে আবার প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

এছাড়াও তিনি কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী এবং কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধীর সাথে বৈঠকে অংশগ্রহণ করেছিলেন। এরপর তিনি আপ নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সাথেও বৈঠক করেছেন। তার পরেই তিনি দিল্লি সফরকালীন কবি জাভেদ আখতার এবং তার স্ত্রী অভিনেত্রী শাবানা আজমির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন।মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগামী সেপ্টেম্বরে আবার দিল্লি র‌ওনা হতে পারেন এমনটাই জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন-“৫০ কোটি মানুষ টীকা পেয়েছেন।”- টুইট করে বললেন প্রধানমন্ত্রী

তৃণমূল সাংসদ দোলা সেন জানিয়েছেন যে আগামী সেপ্টেম্বরে দিল্লির মাটিতে আবার পা রাখতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এবারে দিল্লি গিয়ে আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি সম্পাদন করবেন মুখ্যমন্ত্রী। দিল্লিতে অবস্থিত কনস্টিটিউশন ক্লাবে বিরোধী দল নেতাদের সাথে বৈঠক করবেন তিনি এবং কৃষক নেতাদের সাথেও বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী। এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী যন্তর-মন্তর এবং গাজীপুর বর্ডারে উপস্থিত হতে পারেন যেখানে তিনি বিক্ষোভরত কৃষকদের সাথে বিভিন্ন বিষয়ে পর্যালোচনা করবেন।

আরও পড়ুন-“কারা কারা পাবেন লক্ষীর ভান্ডারের পরিষেবা?”- জানিয়ে দিলো রাজ্য সরকার।

দোলা সেন বলেছেন,”মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিভাবে কৃষকদের স্বার্থ রক্ষার জন্য সিঙ্গুর এবং নন্দীগ্রামে লড়াই করেছিলেন সে কথা সারাদেশ জানে‌। তাই দিল্লিতে বিক্ষোভ রত কৃষকদের পাশে মুখ্যমন্ত্রী অবশ্যই গিয়ে দাঁড়াবেন। মুখ্যমন্ত্রী আগেই বলেছিলেন যে তিনি দ্বিতীয়বার দিল্লী গিয়ে কৃষকদের সাথে দেখা করবেন।”

Related Articles

Back to top button