“উপরতলার চাপে ভীড় আনছে সিবিআই।”- নারদকান্ডে বললেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

“উপরতলার চাপে ভীড় আনছে সিবিআই।”- নারদকান্ডে বললেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

নিজস্ব প্রতিবেদন: নারদকান্ডে সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়। আপাতত তাঁরা অন্তর্বর্তী জামিন পেয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টে বিচারপতিদের বৃহত্তর বেঞ্চে। কিন্তু সিবিআই এই মামলা অন্যত্র সরানোর আবেদন করেছে। সেই শুনানি এখনো জারি রয়েছে।

গতকাল সিবিআইয়ের আইনজীবী তুষার মেহতা কে হাইকোর্টের বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায় বলেছেন, “গত মাসের ১৭ তারিখ আপনারা অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করেছিলেন। নিম্ন আদালত জামিন দেওয়ার পরেই আপনারা হাইকোর্টে আবেদন করেছেন। আপনারা কয়েকদিন পর হাইকোর্টে মামলা না করে এত দ্রুত আবেদন কেন করেছেন? সাধারণভাবে আবেদন করলেই তদন্তকারীদের কি সমস্যার মধ্যে পড়তে হতো?”

আরও পড়ুন-মাত্র ৭ দিনে ভেঙে পড়ল বাংলার পথশ্রী প্রকল্পের তৈরি রাস্তা। ক্ষোভ প্রকাশ করে বাকি থাকা কাজ বন্ধ করে দিলো স্থানীয় মানুষজন।

রাজ্যের আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি স‌ওয়াল করেছেন যে , “ডিভিশন বেঞ্চ আমাদের কোন কথা শোনেনি। কলকাতা শহরে কোন প্রতিবাদ হলে কি সেটা পক্ষপাত দুষ্ট হয়ে যায়?”গতকাল আদালতে হলফনামা জমা দিয়েছেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় । তিনি বলেছেন, “পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে নয়, উপরতলার চাপে পড়ে এই ভীড়ের তত্ত্ব নিয়ে হাজির হয়েছে সিবিআই। আমি সিবিআই অফিসে গিয়েছিলাম সুব্রত মুখোপাধ্যায় কে আইনি সাহায্য প্রদান করার জন্য। ওই দিন অফিসের ভিতরে ততটা ভিড় ছিল না ।”