নিউজপলিটিক্স

প্রচন্ড রোদের তাপে ফাটলো মজুত করা বোমা। উড়ল তৃণমূল কর্মীর বাড়ির পাশের চালাঘর।

নিজস্ব প্রতিবেদন: গতকাল রাজ্যে ৩৫ টি আসনে ভোটগ্রহণ হয়েছে। বীরভূমের ১১ টি আসনে, কলকাতার ৭ টি আসনে, মুর্শিদাবাদের ১১ টি আসনে, এবং মালদার ৬ টি আসনে ভোটগ্রহণ হয়েছে। গতকাল সকাল থেকেই বিভিন্ন জেলায় জেলায় টুকরো টুকরো অশান্তির ছবির সামনে এসেছে। কলকাতার মহাজাতি সদনের সামনে বোমাবাজির ঘটনা ঘটেছে, গতকাল বীরভূমে দুটি জায়গায় উদ্ধার হয়েছে তাজা বোমা। এছাড়াও এন্টালিতে বিজেপি অভিযোগ করেছে যে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতী ইভিএম মেশিনের পাশে দাঁড়িয়ে মানুষকে তৃণমূলে ভোট দিতে জোর করছে।

জায়গায় জায়গায় বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর মিলেছে। এছাড়াও আলিনগরে বেশ কয়েকটি তীর উদ্ধার করেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। বিজেপি অভিযোগ করেছে যে এই তীর বিজেপির দিকে ছোঁড়ার জন্য জড়ো করছিলো। কিন্তু তৃণমূল এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।গতকাল মানিকতলায় বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবে কে ঘিরে বিক্ষোভ দেখিয়েছে তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা।
রাজ্যের জায়গায় জায়গায় বিক্ষিপ্ত ঝামেলা অশান্তি খবর পাওয়া গিয়েছে ।

আরও পড়ুন-“কেন্দ্র ও রাজ্যের জন্য ভ্যাকসিনের আলাদা দাম কেন?” – বিরক্তি প্রকাশ করে বললো সুপ্রিম কোর্ট

এদিকে আজকের একটি ঘটনায় প্রবল চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরের মোহার পূর্বসাই গ্রামে। ওই গ্রামে এক তৃণমূল কর্মী মদন মন্ডল এর বাড়ির পাশের চালা ঘর উড়ে গিয়েছে বিস্ফোরণে। এই বিকট শব্দে কেঁপে উঠেছে এলাকা। আতঙ্কে রীতিমতো ছুটোছুটি পড়ে গিয়েছে মানুষের মধ্যে।

স্থানীয় বিজেপি প্রার্থী অভিযোগ করেছেন যে, ওই তৃণমূল নেতা এলাকায় সন্ত্রাস ছড়ানোর জন্য নিজের চালাঘরে প্রচুর পরিমাণে বোমা মজুত করে রেখেছিলো, দুপুরে প্রবল রোদের তাপে ওই বোমা ফেটে গিয়ে বাড়ির চাল উড়ে গিয়েছে। কিন্তু স্থানীয় তৃণমূল বুথ সভাপতি এই ঘটনায় পাল্টা বিজেপিকে দায়ী করে বলেছেন যে, বিজেপি কর্মীরা তৃণমূলকে বদনাম করার জন্য ওখানে বোমা রেখে এসেছিল যা প্রচণ্ড তাপে ফেটে যায়। ঘটনাস্থলে গিয়ে ছিল সবং থানার পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে বোমের কিছু স্প্লিন্টার এবং একটি বালতি উদ্ধার করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button