মুকুল প্রসঙ্গে দ্বিমত বিজেপির অন্দরে। শুভেন্দু দিলীপের গলায় ভিন্ন সুর।

মুকুল প্রসঙ্গে দ্বিমত বিজেপির অন্দরে। শুভেন্দু দিলীপের গলায় ভিন্ন সুর।

নিজস্ব প্রতিবেদন: পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান নির্বাচন করাকে ঘিরে যথেষ্ট তরজার সৃষ্টি হয়েছে বিজেপি এবং তৃণমূলের মধ্যে। বিজেপি চাইছে এই চেয়ারম্যান পদটি তাদের দখলে রাখতে আবার শাসকদল চাইছে মুকুল রায়কে এই চেয়ারম্যান পদে আসীন করা হোক। এই নিয়ে যথেষ্ট উত্তাপ ছড়িয়েছে বঙ্গ রাজনীতিতে। এই পদে অর্থনীতিবিদ অশোক লাহিড়ীকে বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো বিজেপি।

কিন্তু তৃণমূল এখন চাইছে এই চেয়ারম্যান পদটি তাদের দখলেই থাকুক। তাই এবার তারা নাকি মুকুল রায়কে এই পদে বসানোর জন্য ভাবনা চিন্তা শুরু করেছে। এর ফলে আবার তৃণমূল-বিজেপি তরজা সৃষ্টি হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। এই আবহে গত মঙ্গলবার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বরাদ্দ ১০ টি কমিটির চেয়ারম্যানের নামের তালিকা বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় এর কাছে জমা দিয়েছেন।

আরও পড়ুন-দিল্লিতে নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহের কাছে গেলেন নীতিশ কুমার। মন্ত্রীসভায় কি যোগদান করবেন তিনি?

বিজেপি দাবি করেছে যে আগে পিএসি চেয়ারম্যান এর নাম ঘোষণা করা হোক। বিধানসভায় মোট ৪১ টি কমিটি রয়েছে, এর মধ্যে বিরোধী দল বিজেপির জন্য বরাদ্দ হয়েছে ১০ টি।গতকাল বুধবার এই পিএসগ চেয়ারম্যান পদের জন্য মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মুকুল রায়। এরপরেই মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন লাগু করার পদক্ষেপ নিয়েছে বিজেপি।

আরও পড়ুন-“অরবিন্দ, কৈলাসরা কোথায় ?”- আবার কেন্দ্রীয় নেতাদের কটাক্ষ করলেন তথাগত রায়

বিজেপি জানিয়েছে অশোক লাহিড়ীকে পিএসির চেয়ারম্যান না করা হলে সমস্ত কমিটি তারা বয়কট করবে।বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেছেন, “মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ থাকলে তবে তো তিনি চেয়ারম্যান হবেন, আমরা খুব শীঘ্রই আইনের দ্বারস্থ হব।”এদিকে শুভেন্দুর একদম বিপরীত কথা বলেছেন বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি এই বিষয়ে বলেছেন, “পিএসির চেয়ারম্যান প্রসঙ্গে বলার কিছু নেই আমার।

আরও পড়ুন-পিএসির চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন মুকুল রায়। আইনি পদক্ষেপ নিতে চলেছে বিজেপি

এটা সরকারী বিষয়। সরকার যেটা ভালো বুঝবে সেটা করবে। ‌ সরকার যদি আমাদের কথা না রাখেন তাহলে আইনত আমাদের কিছু করার রাস্তা নেই।”অর্থাৎ এই পিএসির চেয়ারম্যান কে কার্যত প্রকাশ্যে চলে এলো শুভেন্দু এবং দিলীপ ঘোষের দ্বিমতের বিষয়টি ।