নিউজটেক নিউজরাজ্য

রাজ্যে সূত্রপাত হল উপনির্বাচনের প্রস্তুতির।

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোটে ২১৩ টি আসন পেয়ে বাংলার মাটিতে তৃতীয়বারের জন্য সরকার গঠন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে মুখ্যমন্ত্রী পদে অধিষ্ঠিত হয়েও তাঁর সামনে একটি চ্যালেঞ্জ রয়েছে। কারণ যেহেতু তিনি নন্দীগ্রামের তৃণমূল প্রার্থী পথে দাঁড়িয়ে শুভেন্দু অধিকারীর কাছে হেরে গিয়েছেন তাই মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার আগামী ৬ মাসের মধ্যে তাকে উপ নির্বাচনে জিতে আসতে হবে, অন্যথায় তাঁকে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিতে হবে। তাই বাংলার শাসন ক্ষমতার শীর্ষে আসীন হওয়ার পরেও মুখ্যমন্ত্রীর পাখির চোখ ছিল উপনির্বাচন।

জানা গিয়েছে ভবানীপুরে শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়ের ছেড়ে দেওয়া আসনটিতে উপ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বর্তমানে তৃণমূল বারবার নির্বাচন কমিশনকে আবেদন জানাচ্ছে বাংলায় অতি দ্রুত উপ নির্বাচনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে। ‌ করোনা পরিস্থিতিতে উপনির্বাচন অনেক বার পিছিয়ে গিয়েছে। এদিকে অতিমারি পরিস্থিতিতে বিজেপি প্রথম থেকেই উপ নির্বাচনের বিরোধিতা করে আসছে।

আরও পড়ুন-পুরসভার উদ্যোগে কলকাতায় এবার শুরু হতে চলেছে সেরো সার্ভে।

যদিও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছেন যে বাংলায় করোনা পরিস্থিতি বর্তমানে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এই সময়ে এক সপ্তাহ প্রচারের জন্য সময় দিয়ে উপ নির্বাচন সম্পন্ন করা যেতে পারে। এমনটাই অনুরোধ করেছে তৃণমূল। কিন্তু বিজেপি এই পরিস্থিতিতে উপনির্বাচনের ঘোরতর বিরোধিতা করছে।এবার পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার বিভিন্ন কেন্দ্রে উপনির্বাচন খুব শীঘ্রই হবে বলে ইঙ্গিত দিল নির্বাচন কমিশন।

আরও পড়ুন-এবারে কলকাতায় আড়ম্বরহীন মন্ডপ চাইছেন মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

‌ এই মর্মে ভোট যন্ত্রের প্রথম পর্যায়ের যাচাই করার জন্য রাজ্যের সমস্ত রাজনৈতিক দলকে প্রতিনিধি প্রেরণ করতে অনুরোধ করেছে নির্বাচন কমিশন।জানা গিয়েছে প্রতিনিধিদের বলা হয়েছে ভোট যন্ত্র রাখার জায়গা দরজা খোলা থেকে শুরু করে ভোট প্রক্রিয়ার মহড়া পর্যন্ত উপস্থিত থাকার জন্য। রাজ্যের মাটিতে ভবানীপুর সহ সাতটি বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচনের নির্ঘন্ট খুব শীঘ্রই ঘোষণা করে দেওয়া হবে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। ভবানীপুর কেন্দ্রসহ মুর্শিদাবাদের সামশেরগঞ্জ, জঙ্গিপুর কেন্দ্র, শান্তিপুর, খড়দহ, দিনহাটা, গোসাবা কেন্দ্রে এই উপনির্বাচন হতে চলেছে।

প্রশাসন জানিয়েছে ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করা এবং ভোটের দিনের মধ্যে কমপক্ষে ৪৫ দিনের দূরত্ব রাখতে হয়। তাই হয়তো এই নির্বাচনে নির্ঘণ্ট খুব শীঘ্রই ঘোষণা হতে পারে । এরইমধ্যে জানা গিয়েছে আজ মঙ্গলবার থেকেই আগামী ৬ ই আগস্ট পর্যন্ত পর্যন্ত যাচাইয়ের প্রক্রিয়া চালু থাকতে চলেছে।

Related Articles

Back to top button