নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“বোকা বিড়ালকেও তৃণমূলে নিয়ে নিন”- এবার কৈলাস বিজয়বর্গীয়কে আক্রমণ করলেন বিজেপি নেতা তথাগত রায়।

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজ্য রাজনীতিতে ঘটেছে বিরাট পালাবদল। চার বছর বিজেপির সাথে থাকার পর আবার তৃণমূলে ফিরেছেন একদা তৃণমূলের দোর্দন্ডপ্রতাপ মন্ত্রী মুকুল রায়। কয়েকদিন ধরেই জল্পনা তুঙ্গে উঠেছিলো যে আবার তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন করতে পারেন মুকুল এবং তাঁর পুত্র শুভ্রাংশু রায়। কারণ বেশ কয়েকদিন ধরেই ক্রমাগত বেসুরো হয়ে উঠেছিলেন তাঁরা।

এরপরে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় হাসপাতালে মুকুল রায়ের অসুস্থ স্ত্রীকে হঠাৎ দেখতে যাওয়ার পরেই জল্পনা আরো গাঢ় হয়। দিলীপ ঘোষ, লকেট চট্টোপাধ্যায়‌ও মুকুল রায়ের স্ত্রীকে দেখতে গিয়েছিলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজে ফোন করেছিলেন মুকুল রায় কে। কিন্তু মুকুল রায় এবং শুভ্রাংশু রায় সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাক্ষাৎকে। শুভ্রাংশু রায় নিজে বলেছিলেন যে তিনি অভিষেকের আগমনে যথেষ্ট আপ্লুত।

আরও পড়ুন-“ক্ষমতার জন্য বিজেপিতে এলে আমরা তাকে রাখবো না।”- নাম না করে মুকুলকে আক্রমণ করলেন দিলীপ ঘোষ

মুকুল রায় ফিরেছেন তৃণমূলে। আর মুকুল রায়ের তৃণমূলে প্রত্যাবর্তনের পরেই বিজেপিতে তীব্র হয়েছে শীর্ষ নেতাদের প্রতি রাজ্য স্তরের নেতাদের বিদ্রোহ। বিজেপি ছেড়ে দলে দলে লোক ভীড় করছেন তৃণমূলে। কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রতি সরব হয়েছেন বিজেপির রাজ্য নেতা কর্মীরা।

এই আবহে বিজেপি নেতা তথাগত রায়ের সরাসরি নিশানায় বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তিনি টুইটারে কৈলাসের প্রতি তীব্র আক্রমণ শানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে অনুরোধ করেছেন,”এই বোকা বিড়ালটাকেও তৃণমূলে নিয়ে নিন। নিজের বন্ধুকে হারিয়ে উনি হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন। ওই লোকটা সারাদিন মুকুল রায়ের সাথে ফিসফিস করে যেতো।”

আরও পড়ুন-“আবেগে আঘাত আসবে না।”- রাজীবের প্রত্যাবর্তন প্রসঙ্গে বললেন কুণাল ঘোষ।

মুকুল‌ রায়ের সাথে যথেষ্ট সদ্ভাব ছিলো কৈলাসের। কৈলাস বিজয়বর্গীয়র বদান্যতায় কেন্দ্রীয় দলে জায়গা পান মুকুল রায়। তাই কৈলাসকেই এবার সরাসরি আক্রমণ করেছেন তথাগত রায়। এর ফলে বিজেপির অন্দরে যে ক্ষোভের আগুন ধিকিধিকি জ্বলছে তা আবার প্রকাশ্যে চলে এলো।

Related Articles

Back to top button