নিউজভাইরাল & ভিডিও

অবাক কান্ড! আস্ত একটি সাপ কে গিলে খাচ্ছে ব্যাঙটি! মুহূর্তে ভাইরাল হল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এবার প্রতিশোধের পালা। খাদ্য পিরামিড এর চিত্র সম্পূর্ণ উল্টে দেবার সময় হয়তো চলে এসেছে । ঠিক তেমনই প্রমাণ হচ্ছে এই ভিডিওর মাধ্যমে। আমরা প্রতিনিয়ত সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এমন কিছু ল-ড়াইয়ে সাক্ষী দেখে থাকি যেগুলো হয়তো আমরা এর আগে কখনো দেখিনি। ব-নে জ-ঙ্গলে ঘটনা গভীর সমুদ্রের তলদেশে কোন ঘটনা মুহূর্তের মধ্যে সেগুলো আমরা জানতে পারি এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে।

কাজেই একথা অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই যে সোশ্যাল মিডিয়া প্রতিনিয়ত আমাদেরকে আধুনিক থেকে আধুনিক করে তুলছে। এর পাশাপাশি আমরা সাধারণত জানি যে সাপ এবং ব্যাঙ এর মধ্যে একটি খাদ্য ও খাদকের সম্পর্ক রয়েছে। সাপ ব্যাংকে আ-ক্রমণ করে এবং আ-স্ত গি-লে খায়। কিন্তু এই ঘটনাটি সম্পূর্ণ উল্টো চিত্র দেখা গেছে। সবুজ রঙের একটি ব্যাঙ গিলে খেয়ে একটি বড় সাপ কে কিভাবে দেখুন।

আমরা সেই ছোটবেলা থেকেই জেনে এসেছি যে খাদ্য ও খাদকের মধ্যে একটা নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। এবং অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার এক নিদারুন সমীকরণ রয়েছে। খাদ্য পিরামিডের চিত্রতে অনেক ধরনের ঘটনা দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু যে ঘটনাটি সম্প্রতি দেখা গেল তা সম্পূর্ণ রকমভাবে পাল্টে দিলো এই পিরামিড এর চিত্র কে। বিশ্বাস না হলে পুরো প্রতিবেদনটি এবং সম্পূর্ণ পড়ে দেখুন। তাহলে আপনি নিজের বিশ্বাস হবে।

সম্প্রতি ইউটিউব একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে সেখানে দেখানো হয়েছে যে একটি বিশালাকৃতির সবুজ ব্যাঙ একটি সাপ কে গি-লে খাচ্ছে। এবার এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটেছে। সম্প্রতি ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একটি বড় কাঁচের পাত্রের মধ্যে একটি ব্যাঙ রয়েছে এবং সেই কাঁচের পাত্রের মধ্যে রেখে দেওয়া হয়েছে তার সাথে রেখে দেওয়া হয়েছে একটি ছোট্ট সাপের বাচ্চা কে। সেই সাপের বাচ্চাটি সেই জায়গা থেকে বের হবার আপ্রাণ চেষ্টা করছে।

কারণ সে বুঝতে পেরেছে যে তার দিন ঘনিয়ে এসেছে। তারপরেই ধীরে ধীরে সেই ব্যাঙটি এগিয়ে যায় সাপটির দিকে এবং তাকে যেন গি-লে খে-তে শুরু করে। ভিডিওটি সম্পূর্ন রকমভাবে ক্যামেরাব-ন্দি করা হয়েছে যা পরবর্তী ক্ষেত্রে শেয়ার করা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে যা দেখে অনেকেই অবাক। তার পাশাপাশি এমনটা বলা যেতেই পারে যে এই ব্যাংক আর বাকি সাধারণ পাঁচটা ব্যাঙের মতন নয় এটি সম্ভবত আলাদা কোন প্রজাতির।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button