খেলানিউজ

অলিম্পিকে পদক জিতে কোরিয়ান কোচের অভূতপূর্ব প্রশংসা সিন্ধুর। এড়িয়ে গেলেন প্রাক্তন কোচ গোপীচন্দের প্রসঙ্গ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: টোকিও অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ জিতেছেন ভারতের বিখ্যাত শাটলার পি ভি সিন্ধু। দেশের মেয়ের এই কৃতিত্বে খুবই খুশী হয়েছেন সমগ্র দেশবাসী। টোকিও অলিম্পিকে জিতে তিনি তাঁর বর্তমান কোরিয়ান কোচের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন সিন্ধু। কিন্তু এড়িয়ে গিয়েছেন প্রাক্তন কোচ পুল্লেল্লা গোপীচন্দের প্রসঙ্গ।

জল্পনা উঠেছে, যে প্রাক্তন কোচের সাথে কি তাহলে সম্পর্কের অবনতি হয়েছে সিন্ধুর?ভারতের প্রাক্তন ব্যাডমিন্টন তারকা গোপীচন্দের কাছে ব্যাডমিন্টনে তালিম নিয়েছিলেন সিন্ধু । গোপীচন্দ্রের কাছে প্রশিক্ষণ নিয়ে রিও অলিম্পিকে রুপো জিতেছিলেন তিনি। টোকিও অলিম্পিক এর তিন মাস আগে ইংল্যান্ডে অনুশীলন করছিলেন সিন্ধু।

আরও পড়ুন-টোকিও অলিম্পিকে এবার কুস্তিতেও একটি পদক নিশ্চিত ভারতের।

‌ তারপরে ভারতে ফিরেই তার প্রাক্তন কোচ গোপীচন্দের অ্যাকাডেমিতে অনুশীলন করা ছেড়ে দেন সিন্ধু। ‌ তারপর তিনি অনুশীলন করতে শুরু করেন গাচ্চিবৌলি স্টেডিয়ামে তার কোরিয়ান কোচের অধীনে। বহুদিনের কোচ গোপীচন্দের অ্যাকাডেমী ছেড়ে দেওয়ায় যথেষ্ট কানাঘুষোর সৃষ্টি হয় যে, সিন্ধুর হয়তো তাঁর কোচের সাথে মনোমালিন্য হয়েছে। তারপরেই বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের কাছে কখনো প্রাক্তন কোচের নাম মুখে আনেননি সিন্ধু।

সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে সিন্ধু বলেছেন,”প্রত্যেকটি কোচের শেখানোর টেকনিক আলাদা ,তাদের দক্ষতা আলাদা। প্রতিটি কোচের কাছ থেকে যদি এই সমস্ত টেকনিক শেখা যেতে পারে তাহলে অভিজ্ঞতা আরো বাড়বে। করোনার এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে আমাদের টুর্নামেন্ট বাতিল হয়ে গিয়েছিল। যার ফলে আমরা ট্রেনিংয়ের ওপর অনেকটাই জোর দিতে পেরেছিলাম।

আরও পড়ুন-টোকিও অলিম্পিকে কমলপ্রীতকে সাফল্যের মন্ত্র প্রদান করে এক দারুণ টুইট করলেন শচিন টেন্ডুলকার।

আমার বর্তমান কোচ আমাকে অনেক সাহায্য করেছেন, আমার জন্য অনেক পরিশ্রম করেছেন। তিনি স্বপ্ন দেখেছিলেন যাতে আমি অলিম্পিকে পদক জিততে পারি। ‌ অবশেষে তার এবং আমার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। এছাড়াও ভারত সরকারকে অনুশীলন করতে অনুমতি দেওয়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই।”

কিন্তু সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় একবার‌ও সিন্ধু গোপীচন্দের নাম মুখে আনেননি।

Related Articles

Back to top button