নিউজপলিটিক্সরাজ্য

নিজের সমস্ত স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি বৈশাখীর নামে উইল করে দিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রতিটি মানুষের জীবনে কখনো না কখনো সময় প্রেম আসে। প্রেমে মগ্ন হ‌ওয়ার পাশাপাশি প্রতিটি মানুষের কিছু স্বাভাবিক দায়িত্ববোধ রয়েছে কর্তব্য রয়েছে যেগুলো তাকে পালন করতে হয়। অনেক সময় গভীর প্রেমে আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে গিয়ে মানুষ ঠিক বেঠিক বিবেচনা করতে অসমর্থ হয়। ঠিক এমনই ঘটনা ঘটেছে প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সাথে।

বর্তমানে তার দাম্পত্য জীবনে যথেষ্ট চড়াই-উৎরাই দেখা দিয়েছে। তার স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায় এবং ছেলেমেয়ের সঙ্গ ত্যাগ করে শোভন বর্তমানে গোলপার্কের এক বহুতলে থাকেন। তাঁর সাথে ছায়াসঙ্গী হয়ে থাকেন প্রাক্তন অধ্যক্ষা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। সিবিআই গত ১৭ ই মে নারদা মামলায় গ্রেফতার করেছে ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে।

আরও পড়ুন-নিজের নাম বদলে ‘বৈশাখী শোভন বন্দোপাধ্যায়’ রাখলেন বৈশাখী। তাহলে কি তিনি শুরু করতে চলেছেন নতুন ইনিংস?

গ্রেপ্তার করে তাদেরকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল নিজাম প্যালেসে সিবিআই দপ্তরে। তখনই স্বামীর গ্রেপ্তারের খবর শুনে স্থির থাকতে পারেননি রত্না চট্টোপাধ্যায় । সাথে সাথে উকিল কে সাথে নিয়ে তিনি ছুটে গিয়েছিলেন নিজাম প্যালেসে। রত্না চট্টোপাধ্যায় দাম্পত্যে সমস্ত ওঠাপড়া কে একপাশে সরিয়ে রেখে পাশে দাঁড়িয়েছিলেন শোভনের।

আরও পড়ুন-“আঙ্কেল জি, দয়া করে আর ফিরবেন না”- রাজ্যপাল কে কটাক্ষ করলেন মহুয়া মৈত্র

কিন্তু সেই রত্না চট্টোপাধ্যায়ের উপরেই কালিমা লেপন করেছেন শোভন-বৈশাখী। এবার বৈশাখী নিজের ফেসবুক প্রোফাইল পিকচার রাতারাতি পাল্টে ফেলে নাম‌ দিয়েছেন ‘বৈশাখী শোভন ব্যানার্জী।’ এর সাথে ক্যাপশান জুড়েছেন, ‘The journey from Me to We begins…’ এদিকে নিজের সমস্ত সম্পত্তি বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে উইল করে দিয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায় এমনটাই জানা গিয়েছে

আরও পড়ুন-জামাইষষ্ঠীর দিন শোভন চট্টোপাধ্যায়কে উচ্ছেদের নোটিশ পাঠালেন তার শ্যালক

এই ঘটনার কথা জানাজানি হতেই নেটিজেনরা তীব্র নিন্দায় সরব হয়েছেন শোভনের। নিজের ছেলে মেয়ে থাকা সত্ত্বেও কিভাবে তিনি বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে উইল করে দিতে পারেন সেই প্রশ্ন সকলেই ছুঁড়ে দিয়েছেন শোভনের দিকে। শোভন চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, “আমি আমার সমস্ত স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তির পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি করেছি বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় কে। আমাকে গোলপার্কের ফ্ল্যাট থেকে উচ্ছেদের নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

কিন্তু আমি বৈধভাবে এই ফ্ল্যাটে বসবাস করছি। আমার কাছে এগ্রিমেন্ট রয়েছে।”

Related Articles

Back to top button