নিউজপলিটিক্সরাজ্য

অসুস্থতার জন্য এক মাস সময় চাইলেন শিশির অধিকারী।

নিজস্ব প্রতিবেদন: তৃণমূলের বর্ষীয়ান সাংসদ শিশির অধিকারী আগেই ছেলে শুভেন্দুকে অনুসরণ করে পা বাড়িয়েছেন বিজেপির দিকে। কিন্তু তিনি তৃণমূল সাংসদ পদে এখনো আসীন রয়েছেন। শারীরিক অসুস্থতা জনিত কারণে লোকসভার স্পিকারের কাছে চার সপ্তাহ সময় চেয়েছেন শিশির অধিকারী। ‌ তার সাংসদ পদ খারিজের আবেদন আগেই জানিয়েছে তৃণমূল।

জানা গিয়েছে লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা কাছে তিনি শারীরিক অসুস্থতা জনিত কারণ দেখিয়ে বলেছেন যে তাকে অন্তত এক মাস সময় দেওয়া হোক তার পরই তিনি দিল্লি গিয়ে সমস্ত কিছু ব্যাখ্যা করবেন। বিধানসভা নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ার পর দলীয় কর্মসূচিতে উপস্থিত হননি শিশির অধিকারী। কাঁথির তৃণমূল সাংসদ পদে আসীন রয়েছেন শিশির অধিকারী। কিন্তু তিনি বিজেপির ছত্রছায়ায় রয়েছেন।

আরও পড়ুন-কংগ্রেসের আমন্ত্রণে প্রাতরাশ বৈঠকে রণকৌশল স্থির করলেন তৃণমূলসহ বিজেপি বিরোধী নেতারা

শারীরিক অসুস্থতা জনিত কারণে তিনি সংসদে বাদল অধিবেশনে উপস্থিত হতে পারেননি বলে জানিয়েছেন। তিনি এই মর্মে একটি চিঠি দিয়েছেন লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা কে ।গত জানুয়ারি মাসে বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন বর্ধমান পূর্বের তৃণমূল সাংসদ সুনীল মণ্ডল। ‌ এই পরিপেক্ষিতে তৃণমূলের সংসদীয় দল এই মাসেই সুনিল মন্ডলের সাংসদ পদ খারিজের আবেদন জানিয়েছিল।

আরও পড়ুন-দিল্লিতে ৯ বছরের নাবালিকাকে গণধর্ষণ করে খুন। অমিত শাহকে আক্রমণ করে টুইট করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

এরপরে গত ২৩ শে মার্চ এগরায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের মঞ্চে বক্তৃতা দিয়েছিলেন শিশির অধিকারী। ‌ তিনি তৃণমূল সাংসদ পদ না ছাড়লেও বিজেপিকে তিনি সমর্থন করছেন এ কথা স্পষ্ট ভাবেই বোঝা গিয়েছিল। তাই তৃণমূলের প্রাক্তন বর্ষীয়ান নেতা শিশির অধিকারী এবং তৃণমূল সাংসদ সুনীল মন্ডলের অপসারণ চেয়ে গত ১৭ ই মে লোকসভার স্পিকার কে চিঠি দিয়েছিল রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেস।সম্প্রতি লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা শিশির অধিকারী এবং সুনীল মণ্ডল কে নিজেদের অবস্থান জানাতে বলে চিঠি দিয়েছিলেন। ‌

এই চিঠির উত্তর দিয়েছেন শিশির অধিকারী। কিন্তু এই প্রসঙ্গে সুনীল মণ্ডল জানিয়েছেন যে তিনি তৃণমূলেই রয়েছেন। তিনি বিজেপিতে যোগদান করেননি।

Related Articles

Back to top button