নিউজপলিটিক্স

“রুদ্রনীলের বড্ড বেশি কথা বলা অভ্যাস। কিন্তু আমি এখনো চাই ওর ভালো হোক।”- বললেন পরিচালক তথা তৃণমূল প্রার্থী রাজ চক্রবর্তী

নিজস্ব প্রতিবেদন: এবার এই যথেষ্ট পরিমাণে তারকাযোগ হয়েছে রাজনৈতিক দলগুলিতে। তবে রাজনৈতিক দলগুলোতে তারকাদের উপস্থিতি আজকের না, বহুদিন আগে থেকেই রাজনৈতিক ক্ষেত্রে পদার্পণ করছেন তারকারা। বাংলায় এবারে ব্যাপক পরিমাণে তৃণমূল এবং বিজেপিকে নাম লিখিয়েছেন টলিউডের তারকা প্রার্থীরা। তৃণমূলে বেশ কয়েকবছর আগে থেকেই রয়েছেন অভিনেতা দেব, সোহম, অভিনেত্রী নুসরত, মিমি প্রমুখেরা।

এবারে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন কৌশানী, সায়ন্তিকা, কাঞ্চন মল্লিক সহ আরো বেশ কয়েকজন। বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন বনি থেকে শুরু করে পায়েল, যশ , শ্রাবন্তী প্রমুখ তারকারা। ব্যারাকপুরের তৃণমূল প্রার্থী হয়ে দাঁড়িয়েছেন বাংলার বিখ্যাত পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। তিনি কিছুদিন আগেই অভিযোগ করেছিলেন যে তাদের ফোন নম্বর সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস করে দেওয়া হয়েছে, যার ফলে মিনিটে মিনিটে ব্যাপক পরিমাণে ফোন কল, মেসেজ ঢুকতে থাকায় আমাকে ফোন বন্ধ রাখতে হয়েছে।

আরও পড়ুন-ভোট দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

তিনি বলেছেন, “মানুষের মন খুবই অদ্ভুত। এইভাবে তারকা প্রার্থীদের নাম্বার সকলের সামনে উপস্থাপিত করে কোন উপকার হলো না। কাজটা করেছে বামপন্থীরা যাদের আমি এতদিন শিক্ষিত এবং রুচিশীল বলেই জেনে এসেছি।”এছাড়াও রাজ চক্রবর্তী বলেছেন, “ব্যারাকপুরে ভোটে কয়েকটি ছোট ঘটনা ছাড়া নির্বাচন প্রক্রিয়া ভালো ভাবে সম্পন্ন হয়েছে। কেন্দ্রীয় বাহিনী খুবই সাহায্য করেছে।

“ভবানীপুরের বিজেপির তারকা প্রার্থী রূদ্রনীল ঘোষকে উদ্ধৃত করে রাজ চক্রবর্তী বলেছেন, “রুদ্রর বড্ড বেশি কথা বলার অভ্যাস। কিন্তু আমি সব সময় চাই ওর ভালো হোক। শ্রাবন্তী বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরেও ওকে আমি শুভেচ্ছা জানিয়ে ছিলাম। রাজনৈতিক সংগঠন আলাদা হতে পারে কিন্তু আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে আমরা সকলেই বন্ধু হিসাবেই থাকবো।”

Related Articles

Back to top button